কুলাউড়ার সেই ব্রিজ দিয়ে সিলেট-ঢাকা রেল যোগাযোগ চালু

  মৌলভীবাজার ও কুলাউড়া প্রতিনিধি ২৪ জুন ২০১৯, ২১:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশনের পাশে ঢাকাগামী উপবনের বগি ছিটকে পড়ে
কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশনের পাশে ঢাকাগামী উপবনের বগি ছিটকে পড়ে

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল রেলওয়ে স্টেশনের পাশে ইসলামাবাদ এলাকার বডড়ছড়া সেতুটি ভেঙে আন্তঃনগর উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি রোববার রাত পৌনে ১২টায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে।

এতে ট্রেনটির ১৭টি বগির মধ্যে ৬ বগি লাইনচ্যুত ব্রিজের নিচে ও সড়কের পাশে পড়ে যায়। এতে ট্রেনটি দুমড়েমুচড়ে যায় ও ব্যাপক হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর থেকেই সিলেটের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। ওই দুর্ঘটনায় আগে থেকেই নাজুক অবস্থায় থাকা এই ব্রিজ ও রেল লাইনটি একেবারেই ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে যায়।

সোমবার রেল বিভাগের কর্মীরা দিনভর উদ্ধার ও মেরামত শেষে ওই ব্রিজ ও রেল লাইনটি ব্যবহারের উপযোগী করতে পারায় রাত ৮টার দিকে ওই রেলপথ দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

ট্রায়াল ট্রেন ওই পথ ও ব্রিজ দিয়ে চলাচল করার পর রাত সাড়ে ৮টার দিকে সিলেটের সঙ্গে ঢাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হয়।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন রেলপথ বিভাগীয় প্রকৌশলী আহসান জাবিদ।

এদিকে স্থানীয়রা ভয়বহ দুর্ঘটনা এড়াতে জরুরি ভিত্তিতে পুরাতন ঝুঁকিপূর্ণ রেলওয়ে ব্রিজ ও লাইন নতুন করে তৈরি ও মেরামতের জোর দাবি জানান।

রোববার রাত ১২টার দিকে কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশনের পাশে ঢাকাগামী উপবনের বগি ছিটকে পড়ে। তিন সহস্রাধিক যাত্রী নিয়ে রাতে সিলেট স্টেশন থেকে ঢাকার উদ্দেশে ট্রেনটি ছেড়ে যায়।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সিলেটের সহকারী পরিচালক মুজিবুর রহমান জানান, হতাহতদের উদ্ধারে সিলেট সদর দফতরসহ মৌলভীবাজার জেলার দমকল বাহিনীর ১১টি ইউনিট উদ্ধার তৎপরতায় যোগ দেয়।

ঘটনাপ্রবাহ : কুলাউড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা

আরও
আরও পড়ুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×