যশোর কোতোয়ালী থানার সেই ওসি অপূর্ব হাসান স্ট্যান্ডরিলিজ

  যশোর ব্যুরো ২৪ জুন ২০১৯, ২৩:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

ওসি অপূর্ব হাসান
ওসি অপূর্ব হাসান

যশোর কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি অপূর্ব হাসানকে স্ট্যান্ডরিলিজ করা হয়েছে।

সোমবার পুলিশ সদর দফতর থেকে তার বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ নেয়া হয়। তাকে শিল্প-পুলিশে যোগদান করতে বলা হয়েছে।

গত বছর ১০ জুলাই অপূর্ব হাসান বেনাপোল থেকে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানায় যোগদান করেছিলেন।

যশোর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) আনছার উদ্দিন জানিয়েছেন, পুলিশ সদর দফতরের নির্দেশে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি অপূর্ব হাসানকে স্ট্যান্ডরিলিজ করা হয়েছে। তাকে শিল্প পুলিশে যোগদানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জানা যায়, সম্প্রতি যশোরে পরপর কয়েকটি হত্যাকাণ্ড ও ছুরিকাঘাতসহ অপরাধ বেড়ে যাওয়ায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি আলোচনায় উঠে আসে। এক মাসের ব্যবধানে যশোর শহর ও শহরতলীতে অন্তত ৫টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

সর্বশেষ গত ২০ জুন সন্ধ্যায় বাহাদুরপুর এলাকায় ছুরিকাঘাতে প্রাণ যায় দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া মাদরাসা ছাত্র সম্রাটের। একইদিন শহরের খোলাডাঙ্গা এলাকা থেকে ড্রামবন্দি সিনবাদ নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে ১৮ জুন শহরের শংকরপুর বাস টার্মিনাল এলাকায় সানি নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করে দলীয় প্রতিপক্ষের লোকজন। ১৩ জুন শহরের সন্যাসী দীঘির পাড় এলাকায় ছুরিকাঘাতে ফেরদৌস (২০) নামে এক যুবক নিহত হন।

গত ৬ জুন যশোরের রায়পাড়ায় পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র টিবি ক্লিনিক এলাকার আবদুল্লাহকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। আর গত ২০ মে বাহাদুরপুর এলাকায় ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয় জুটমিল শ্রমিক শহীদ কাজীকে।

এ হত্যাকাণ্ডের পাশাপাশি গত ২০ জুন রাতে যশোরে পুলিশের বিরুদ্ধে সুফিয়া খাতুন (৫০) নামে ‘অসুস্থ এক নারীর পেটে লাথি মারার অভিযোগ’ ওঠে।

শহরের খড়কি হাজামপাড়া এলাকায় শ্রাবণী নামে মহিলাকে ধরতে যান কোতোয়ালি থানার এসআই বিপ্লব ও ইকবাল ওই নারীর পেটে লাথি মারেন। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের পরিবর্তে ওই নারী ও তার পরিবারকে উল্টো চাপ দিতে থাকে। এক পর্যায়ে ওই নারী চিকিৎসা সম্পন্ন না করেই হাসপাতাল ছাড়তে বাধ্য হন।

এর আগে গত ১৫ জুন বিকালে উপশহর এলাকা থেকে অপহরণের শিকার হয় যশোর উপশহর উচ্চবালিকা বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ও সদর উপজেলার পাগলাদহ গ্রামের তরিকুল ইসলামের মেয়ে তানিয়া ইসলাম বৃষ্টি (১৪)।

অপহরণের বিষয়ে কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দিলেও এক সপ্তাহ ঘুরিয়েও পুলিশ মামলা নেয়নি। সর্বশেষ এই দুটি ঘটনা নিয়ে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×