সৌদি রিয়ালের পরিবর্তে কাগজে মোড়ানো ভিম বার!

  বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ২৫ জুন ২০১৯, ২১:৫২ | অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের হাতে আটক প্রতারক চক্রের সদস্য হাসিবুল মিয়া
পুলিশের হাতে আটক প্রতারক চক্রের সদস্য হাসিবুল মিয়া

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় টাকার বিনিময়ে সৌদি রিয়াল কিনতে চেয়েছিলেন মুদি ব্যবসায়ী সাইদুল ইসলাম। এ জন্য হাসিবুল মিয়া নামে এক প্রতারককে ৬০ হাজার টাকাও দিয়েছিলেন। কিন্তু দেখা গেছে রিয়ালের পরিবর্তে রয়েছে ভিম বার।

মঙ্গলবার পুলিশ প্রতারক চক্রের ওই সদস্যকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলেহাজতে পাঠিয়েছে।

আটক হাসিবুল মিয়া গোপালগঞ্জ জেলার মোকশেদপুর উপজেলার পাথরঘাটা গ্রামের সামাদ মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ৫টি প্রতারণা ও মাদক মামলা রয়েছে।

এ প্রতারক চক্র একই কায়দায় উপজেলার কাঠালতলী বাজারের ব্যবসায়ী সালেহ উদ্দিনের কাছ থেকে ২ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, বড়লেখার দক্ষিণভাগ বাজারের মুদি ব্যবসায়ী সাইদুল ইসলামের দোকানে গিয়ে প্রতারক হাসিবুল মিয়া জানায়- এক ব্যক্তি তার কাছ থেকে একটি ১০০ রিয়ালের সৌদি নোট নিয়ে মাত্র ৩০০ টাকা দিয়ে আর টাকা দিচ্ছে না। তার কাছে ১০০ রিয়ালের আরও ১০০টি নোট রয়েছে কিন্তু ভাঙ্গাতে ভয় পাচ্ছে, নেয়ার পর যদি টাকা না দেয়।

হাসিবুল মিয়া জানান, সাইদুল ইসলাম যদি রিয়ালগুলো নেন তবে তাকে ভালো মুনাফা দেবেন। ১ লাখ টাকা দাম নির্ধারণ করে প্রতারক হাসিবুল চলে যান। সোমবার দুপুরে ফোনে হাসিবুল জানান রিয়ালগুলো নিয়ে তিনি শাহবাজপুর বাজারে অপেক্ষা করছেন।

টাকা দিয়ে সেগুলো আনার অনুরোধ জানালে ব্যবসায়ী সাইদুল এক বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে শাহবাজপুর বাজারের স্কুল অ্যান্ড কলেজের পেছনের রাস্তায় গিয়ে দেখেন সেখানে আরও দুই ব্যক্তি নিয়ে হাসিবুল অপেক্ষা করছেন। ব্যবসায়ী সাইদুল ১ লাখ টাকা যোগাড় করতে পারেননি। তিনি ৬০ হাজার টাকা নিয়ে যান। এ টাকায় ১০০ রিয়ালের ৬০টি নোট দিয়ে দিতে বলেন হাসিবুলকে।

এ সময় তিন প্রতারক একটি পোটলার মধ্যে রিয়ালের ৪-৫টি নোট দেখিয়ে পোটলাটি গামছা দিয়ে বেঁধে বলে- এখানে ৬০টি নোট রয়েছে এখন ৬০ হাজার টাকা দেন। টাকা নিয়ে তারা দ্রুত চলে যায়।

পরে সাইদুল পোটলা খুলে দেখেন সেখানে রিয়ালের পরিবর্তে পত্রিকা কাগজে মোড়ানো একটি ভিম সাবান রয়েছে। পরে দ্রুত ধাওয়া করে জনতার সহায়তায় প্রতারক হাসিবুল মিয়াকে আটক করে স্থানীয় ইউপি অফিসে নিলে ইউপি চেয়ারম্যান আহমদ জুবায়ের লিটন পুলিশে খবর দেন। এর আগেই অপর দুই প্রতারক প্রদীপ ও তারা মিয়া পালিয়ে যায়।

এর আগে রোববার এ চক্র কাঠালতলী বাজারের সালেহ উদ্দিন নামে এক ব্যবসায়ীকে সৌদি রিয়ালের পরিবর্তে গামছায় মোড়ানো কাগজের একটি পোটলা দিয়ে ২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। মঙ্গলবার তিনি থানায় গিয়ে আটক প্রতারককে শনাক্ত করেছেন।

বড়লেখা থানার ওসি মো. ইয়াছিনুল হক জানান, ভুক্তভোগী সাইদুল ইসলাম ৩ প্রতারকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দিয়েছেন। অভিনব কৌশলে প্রতারণা করাই তাদের পেশা। গ্রেফতারকৃত হাসিবুলের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ৫টি প্রতারণা ও মাদক মামলা রয়েছে।

মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×