যমুনার পানি বিপদসীমার ৪১ সেন্টিমিটার ওপরে

প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০১৯, ১২:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

  বগুড়া ব্যুরো

ফাইল ছবি

ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও বানে বগুড়ায় যমুনা নদীর পানি বেড়ে বিপদসীমার ৪১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এতে চলমান বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে।

রোববার বেলা ১২টা পর্যন্ত যমুনার পানি বিপদসীমার ৪১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হকে দেখা গেছে।  আরও এক সপ্তাহ পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে বলে জানান, বগুড়ার পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী হাসান মাহমুদ

তিনি জানান, যমুনা নদীর সারিয়াকান্দি পয়েন্টে বিপদসীমা ধরা হয় ১৬ দশমিক ৭০ সেন্টিমিটার।  শনিবার সকাল ৯টায় পানি ছিল ১৬ দশমিক ৬৭ সেন্টিমিটার। ২৪ ঘণ্টায় ৪১ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়ে বেলা ১২টা পর্যন্ত ৪১ সেন্টিমিটার পানিপ্রবাহ রেকর্ড করা হয়েছে। 

সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি, সাঘাটা এবং সদর উপজেলায় নদীতীরবর্তী নিম্নাঞ্চলসহ বিভিন্ন চরের নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় ভাঙনও দেখা দিয়েছে। 

ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ জানান, ফুলছড়ি ইউনিয়নের দেলুয়াবাড়ি, জামিরা, গজারিয়া ইউনিয়নের গলনা, ফজলুপুর ইউনিয়নের খাটিয়ামারী ও কাউয়া বাঁধায় গত এক সপ্তাহে শতাধিক ঘরবাড়ি এবং ফসলি জমি ব্রহ্মপুত্রের ভাঙনের শিকার হয়েছে। 

এ ছাড়া সদর উপজেলার রায়দাসবাড়ি ও কামারজানি এবং সুন্দরগঞ্জ উপজেলার হরিপুর, কাপাসিয়া ও চণ্ডিপুর এলাকায় ব্যাপক ভাঙন চলছে। ওই সব এলাকায় গত এক সপ্তাহে ৮৫টি ঘরবাড়ি এবং প্রচুর ফসলি জমি তিস্তার ভাঙনে বিলীন হয়ে গেছে।