ট্রেনে মশার ওষুধ ছিটানোয় বৈষম্য!
jugantor
ট্রেনে মশার ওষুধ ছিটানোয় বৈষম্য!

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৩ আগস্ট ২০১৯, ১৩:১৪:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

আন্তঃনগর ট্রেনের এসি বগিগুলোতে মশার ওষুধ স্প্রে করা হলেও সাধারণ বগিগুলোতে তা করা হচ্ছে না। ফলে ঢাকা থেকে আসা ট্রেনের মাধ্যমেও সারা দেশে এডিস মশা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

গতকাল শুক্রবার দিনাজপুর রেলস্টেশনে ঢাকা থেকে আসা যাত্রীরা এমন অভিযোগ করেছেন।

তারা জানিয়েছেন, আন্তঃনগর ট্রেনের এসি বগি ছাড়া মশার ওষুধ স্প্রে করা হয় না। এছাড়া ট্রেনের বগিগুলো নোংরা আবর্জনায় ভর্তি।

তবে মশা নিধনের ওষুধ স্প্রে না করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন ট্রেনে দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও।

মাহবুবা সরকার নামের এক যাত্রী জানান, বৃহস্পতিবার রাতে সন্তান নিয়ে কমলাপুর থেকে তিনি পঞ্চগড় এক্সপ্রেসে ওঠেন। বগিতে মশার ব্যাপক উৎপাত ছিল। কিন্তু কোনো মশার ওষুধ স্প্রে করা হয়নি।

তিনি আরও জানান, মশার কামড় থেকে বাঁচতে বিমানবন্দর স্টেশন থেকে কয়েল কিনেন। এছাড়াও বগিও অপরিষ্কারও ছিল। এভাবে থাকলে ঢাকা থেকে সারাদেশে এডিস মশা ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করেন এই নারী।

একই ট্রেনের আরেক যাত্রী জানালেন, ট্রেনের এসি বগিগুলোতে স্প্রে করা হলেও সাধারণ বগিগুলোয় কোনো ওষুধ স্প্রে করা হচ্ছে না। ফলে ট্রেনভর্তি মশা নিয়ে ট্রেনগুলো ঢাকা থেকে ছাড়ছে।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় এক্সপ্রেসের রেলওয়ে পরিচর্যক অবন্তী ভূষন জানান, ট্রেনে মশার ওষুধ স্প্রে করার বিষয়টি তার চোখে পড়েনি এবং এটি তার জানাও নাই।

তবে শুধু এসি বগিগুলোতে মশকনিধন ওষুধ স্প্রে করা হয়েছে বলে জানান একই ট্রেনের পরিচালক নুরুল ইসলাম।

ট্রেনে মশার ওষুধ ছিটানোয় বৈষম্য!

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৩ আগস্ট ২০১৯, ০১:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আন্তঃনগর ট্রেনের এসি বগিগুলোতে মশার ওষুধ স্প্রে করা হলেও সাধারণ বগিগুলোতে তা করা হচ্ছে না। ফলে ঢাকা থেকে আসা ট্রেনের মাধ্যমেও সারা দেশে এডিস মশা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

গতকাল শুক্রবার দিনাজপুর রেলস্টেশনে ঢাকা থেকে আসা যাত্রীরা এমন অভিযোগ করেছেন। 

তারা জানিয়েছেন, আন্তঃনগর ট্রেনের এসি বগি ছাড়া মশার ওষুধ স্প্রে করা হয় না। এছাড়া ট্রেনের বগিগুলো নোংরা আবর্জনায় ভর্তি।

তবে মশা নিধনের ওষুধ স্প্রে না করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন ট্রেনে দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও। 

মাহবুবা সরকার নামের এক যাত্রী জানান, বৃহস্পতিবার রাতে সন্তান নিয়ে কমলাপুর থেকে তিনি পঞ্চগড় এক্সপ্রেসে ওঠেন। বগিতে মশার ব্যাপক উৎপাত ছিল। কিন্তু কোনো মশার ওষুধ স্প্রে করা হয়নি। 

তিনি আরও জানান, মশার কামড় থেকে বাঁচতে বিমানবন্দর স্টেশন থেকে কয়েল কিনেন। এছাড়াও বগিও অপরিষ্কারও ছিল। এভাবে থাকলে ঢাকা থেকে সারাদেশে এডিস মশা ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করেন এই নারী। 

একই ট্রেনের আরেক যাত্রী জানালেন, ট্রেনের এসি বগিগুলোতে স্প্রে করা হলেও সাধারণ বগিগুলোয় কোনো ওষুধ স্প্রে করা হচ্ছে না। ফলে ট্রেনভর্তি মশা নিয়ে ট্রেনগুলো ঢাকা থেকে ছাড়ছে।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় এক্সপ্রেসের রেলওয়ে পরিচর্যক অবন্তী ভূষন জানান, ট্রেনে মশার ওষুধ স্প্রে করার বিষয়টি তার চোখে পড়েনি এবং এটি তার জানাও নাই।

তবে শুধু এসি বগিগুলোতে মশকনিধন ওষুধ স্প্রে করা হয়েছে বলে জানান একই ট্রেনের পরিচালক নুরুল ইসলাম।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন