চিরকুট লিখে ছাত্রীর আত্মহত্যা, ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি ০৮ আগস্ট ২০১৯, ২১:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

স্বর্ণা আক্তার
স্বর্ণা আক্তার। ফাইল ছবি

ফেসবুকে ভিডিও ছেড়ে বখাটেদের মিথ্যা অপবাদ দেয়ায় বিচার চেয়ে চিরকুট লিখে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় মাদ্রাসাছাত্রী স্বর্ণা আক্তারের আত্মহত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে চারজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৩-৪ জনের বিরুদ্ধে রাঙ্গাবালী থানায় এ মামলা করা হয়। নিহত স্বর্ণার বাবা নাসির উদ্দিন সিকদার বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

সদর ইউনিয়নের চরযমুনা গ্রামে দশম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রী স্বর্ণা আক্তারের আত্মহত্যার সেই ঘটনায় মামলা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হল উপজেলার সেনের হাওলা গ্রামের সবুজ আকনের ছেলে হৃদয় আকন (১৯), চরযমুনা গ্রামের মাহবুব হাওলাদারের ছেলে লিমন হাওলাদার (২২), সেনের হাওলা গ্রামের খালেক মৃধার ছেলে অন্তর মৃধা (১৯) ও চরকানকুনি গ্রামের ইউনুস জোমাদ্দারের ছেলে রাহাত জোমাদ্দার (২১)। এছাড়াও অজ্ঞাতনামা ৩-৪ জনকে আসামি করা হয়।

তবে আসামিদের কাউকে এখনও গ্রেফতার হয়নি। পুলিশের দাবি, আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

এ বিষয়ে বুধবার যুগান্তরের অনলাইন ভার্সনে ‘চিরকুটে বিচার চেয়ে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা’ ও বৃহস্পতিবার প্রিন্ট ভার্সনের নগর-মহানগর পাতায় ‘ভুয়া ভিডিও ছেড়ে অপবাদ, বখাটেদের বিচার চেয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এর পরপরই বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয় এবং মামলা হয়।

স্বর্ণার বাবা নাসির উদ্দিন সিকদার মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, তার মেয়ে স্বর্ণা প্রতিদিন বিকালে রাজার বাজারের (নিজ গ্রাম সংলগ্ন) রিপন মাস্টারের কাছে প্রাইভেট পড়ত। পথিমধ্যে উল্লিখিত আসামিরা স্বর্ণাকে কুপ্রস্তাব দিত এবং তার নামে অশ্লীল ছবি ফেসবুকে প্রকাশ করার কথা বলত। এতে সে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। বিষয়টি জেনে আসামিদের অভিভাবকদের জানালেও তারা নিশ্চুপ ছিল।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, গত ৬ আগস্ট স্বর্ণা তার মাকে কান্নাকাটি করে জানায় যে, আসামিরা স্বর্ণার ছবি দিয়ে মিথ্যা ভিডিও বানিয়ে অপবাদ দিয়ে খারাপ (আপত্তিকর) কিছু করার চেষ্টা করছিল। এ রকম করলে সে আত্মহত্যা করবে বলে জানায়। পরে তাদের (আসামিদের) মিথ্যা অপবাদের কারণে লোকলজ্জায় মঙ্গলবার রাতে স্বর্ণা ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। তার আত্মহত্যার আগে আসামিদের কার্যকালাপ চিরকুটে লিখে যায়। এতে আসামিদের দায়ী করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ বলেন, ‘আমরা ঘটনার পরপরই আসামিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছি। আসামিরা পালিয়ে থাকতে পারবে না। যে কোনো মূল্যে তাদের গ্রেফতার করা হবে।’

উল্লেখ্য, মিথ্যা ভিডিও ফেসবুকে ছাড়ায় অপবাদকারীদের বিচার চেয়ে চিরকুট লিখে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের চরযমুনা গ্রামের নিজ বাড়িতে স্বর্ণা আক্তার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। বুধবার সকালে নিজ বাড়ি থেকে তার লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

স্বর্ণা উপজেলার খালগোড়া সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির ছাত্রী। আত্মহত্যার আগে চার বখাটের বিরুদ্ধে তার লিখে যাওয়া চিরকুটটি পুলিশের হাতে রয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×