ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ২ শতাধিক চামড়া গোমতী নদীতে

  বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি ১৪ আগস্ট ২০১৯, ২১:২১ | অনলাইন সংস্করণ

ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ২ শতাধিক চামড়া গোমতী নদীতে
ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ২ শতাধিক চামড়া গোমতী নদীতে

এবারের কোরবানির পশুর চামড়ার দর পতন হওয়ায় ব্যবসায়ী ও বিক্রেতারা চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

স্থানীয় লোকজন ও অভিজ্ঞ মহল মনে করেন একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে একটি মহল এধরনের কারসাজি করে ন্যায্য মূল্য থেকে গরিব ও এতিমদেরকে বঞ্চিত করেছে।

গত দুই যুগ ধরে চামড়ার এমন দর পতন কখনো দেখেনি। গরুর প্রতিটি চামড়া সিন্ডিকেটের লোকজন ২-৩ শ’ টাকা মূল্য নির্ধারণ করে। এতে বুড়িচং উপজেলার বিভিন্ন গ্রামগঞ্জে হাজার হাজার চামড়া আটকে যায়। এলাকাবাসী হয়ে উঠে চরম ক্ষুদ্ধ।

মঙ্গলবার চামড়ার দাম ২-৩ শ’ টাকার বেশি না পাওয়ায় উপজেলায় পীর যাত্রাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দ পুর গ্রামের ব্যবসায়ী আমান উল্লাহ, শাহ আলম, ময়নাল হোসেনসহ আরও ২-৩ জন মিলে তাদের ক্রয় করা ২ শতাধিক চামড়া গোমতী নদীতে ফেলে দেয়।

ব্যবসায়ী আমান উল্লাহ বলেন, আমরা কয়েকজন মিলে ২ শতাধিক চামড়া এলাকা থেকে সংগ্রহ করি। কিন্তু চামড়ার এমন দরপতন হয়েছে যা হতাশ হওয়া ছাড়া আর কিছু করার নাই।

কোরবানির পশুর চামড়ার হক হল গভীর অসহায় আর এতিমদের। একটি সিন্ডিকেটের কাছে সবাই জিম্মি হয়ে পড়েছি। তাই যে টাকা দিয়ে এলাকা থেকে চামড়া সংগ্রহ করেছি তার অর্ধেক দাম পাওয়া যাচ্চে না। এর জন্য বাধ্য হয়ে প্রায় ২৪৫টি গরুর চামড়া আমরা তিন ব্যবসায়ী ট্রাকসহ নিয়ে গোবিন্দপুর গোমতী নদীর ব্রিজের ওপর থেকে নদীতে ফেলে দেই।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×