শ্রীবরদীতে নেশার টাকা না পেয়ে ছেলেকে কুপিয়ে জখম
jugantor
শ্রীবরদীতে নেশার টাকা না পেয়ে ছেলেকে কুপিয়ে জখম

  শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি  

১৬ আগস্ট ২০১৯, ২২:০৫:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

শেরপুরের শ্রীবরদীতে নেশার টাকা না পেয়ে ছেলেকে কুপিয়ে জখম করেছে এক ঘাতক পিতা। এ সময় ঠেকাতে গিয়ে প্রতিবেশীও জখম হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার সিংগাবরুনা ইউনিয়নের চান্দাপাড়া গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে।

গুরুতর জখম চান্দাপাড়া গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে রিপন (১৮)।
ঘাতক পিতা ওই গ্রামের নূর হোসেন ওরফে নুরু মিয়ার ছেলে জহির উদ্দিন। ঘটনার পরই এলাকাবাসী ওই ঘাতক পিতাকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে।

এলাকাবাসী ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, জহির উদ্দিন মাদক সেবনের সঙ্গে জড়িত। মাঝে মধ্যেই টাকা-পয়সা নিয়ে তার স্ত্রী রেহেনা বেগমের সঙ্গে ঝগড়া-বিবাদ করে। সেই দিন জহির উদ্দিন তার স্ত্রীর কাছে টাকা চাইলে ঝগড়া-বিবাদের সৃষ্টি হয়। জহির উদ্দিনের ছেলে এর প্রতিবাদ করে।

একপর্যায়ে ধারালো রাম দা দিয়ে রিপনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় প্রতিবেশী মৃত আলী হোসেনের ছেলে বদিউজ্জামান (৫০) ঠেকাতে গেলে জহির উদ্দিন তাকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

পরে এলাকাবাসী তাদের দুইজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের শেরপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে শেরপুর সদর হাসপাতাল থেকে তাহাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় বদিউজ্জামানের স্ত্রী আয়শা বেগম বাদী হয়ে জহির উদ্দিনের নামে শ্রীবরদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

শ্রীবরদী থানার ওসি মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, এ ঘটনায় জহির উদ্দিনের নামে মামলা হয়েছে।

শ্রীবরদীতে নেশার টাকা না পেয়ে ছেলেকে কুপিয়ে জখম

 শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি 
১৬ আগস্ট ২০১৯, ১০:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শেরপুরের শ্রীবরদীতে নেশার টাকা না পেয়ে ছেলেকে কুপিয়ে জখম করেছে এক ঘাতক পিতা। এ সময় ঠেকাতে গিয়ে প্রতিবেশীও জখম হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার সিংগাবরুনা ইউনিয়নের চান্দাপাড়া গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে।

গুরুতর জখম চান্দাপাড়া গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে রিপন (১৮)। 
ঘাতক পিতা ওই গ্রামের নূর হোসেন ওরফে নুরু মিয়ার ছেলে জহির উদ্দিন। ঘটনার পরই এলাকাবাসী ওই ঘাতক পিতাকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে।

এলাকাবাসী ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, জহির উদ্দিন মাদক সেবনের সঙ্গে জড়িত। মাঝে মধ্যেই টাকা-পয়সা নিয়ে তার স্ত্রী রেহেনা বেগমের সঙ্গে ঝগড়া-বিবাদ করে। সেই দিন জহির উদ্দিন তার স্ত্রীর কাছে টাকা চাইলে ঝগড়া-বিবাদের সৃষ্টি হয়। জহির উদ্দিনের ছেলে এর প্রতিবাদ করে।

একপর্যায়ে ধারালো রাম দা দিয়ে রিপনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় প্রতিবেশী মৃত আলী হোসেনের ছেলে বদিউজ্জামান (৫০) ঠেকাতে গেলে জহির উদ্দিন তাকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

পরে এলাকাবাসী তাদের দুইজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের শেরপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে শেরপুর সদর হাসপাতাল থেকে তাহাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় বদিউজ্জামানের স্ত্রী আয়শা বেগম বাদী হয়ে জহির উদ্দিনের নামে শ্রীবরদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

শ্রীবরদী থানার ওসি মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, এ ঘটনায় জহির উদ্দিনের নামে মামলা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন