ফরিদপুরে ১৪ মামলার আসামিকে গলা কেটে হত্যা
jugantor
ফরিদপুরে ১৪ মামলার আসামিকে গলা কেটে হত্যা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৩:২৪:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুরে ১৪ মামলার আসামিকে গলা কেটে হত্যা
ছবি: যুগান্তর

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় এক যুবকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার নাম রিপন কাজী (৩৮)।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার কলিমাঝি দেউলী এলাকার তালতলা থেকে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। 

পুলিশের দাবি, নিহত রিপন ১৪ মামলার আসামি।  চুরির মালামাল অথবা মাদক বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে কোন্দলে তাকে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। রিপন উপজেলার বাগডাঙ্গা গ্রামের ছিরু কাজীর ছেলে।

বোয়ালমারী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শহীদুল ইসলাম জানান, উপজেলার কলিমাঝি দেউলী এলাকার তালতলায় এক যুবকের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন।

নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানায় চুরি, ডাকাতি ও মাদকদ্রব্য মামলাসহ ১৪টি মামলা রয়েছে। 

চুরির মালামাল অথবা মাদক বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে কোন্দলে তাকে গলা কেটে হত্যা করা হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ফরিদপুরে ১৪ মামলার আসামিকে গলা কেটে হত্যা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফরিদপুরে ১৪ মামলার আসামিকে গলা কেটে হত্যা
ছবি: যুগান্তর

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় এক যুবকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার নাম রিপন কাজী (৩৮)।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার কলিমাঝি দেউলী এলাকার তালতলা থেকে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশের দাবি, নিহত রিপন ১৪ মামলার আসামি। চুরির মালামাল অথবা মাদক বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে কোন্দলে তাকে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। রিপন উপজেলার বাগডাঙ্গা গ্রামের ছিরু কাজীর ছেলে।

বোয়ালমারী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শহীদুল ইসলাম জানান, উপজেলার কলিমাঝি দেউলী এলাকার তালতলায় এক যুবকের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন।

নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানায় চুরি, ডাকাতি ও মাদকদ্রব্য মামলাসহ ১৪টি মামলা রয়েছে।

চুরির মালামাল অথবা মাদক বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে কোন্দলে তাকে গলা কেটে হত্যা করা হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন