বেষ্ট প্রবেশনার ও হর্সম্যানশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন এএসপি সালাহ্ উদ্দিন রিফাত
jugantor
বেষ্ট প্রবেশনার ও হর্সম্যানশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন এএসপি সালাহ্ উদ্দিন রিফাত

  নীল রতন, বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৪৭:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

সালাহ্ উদ্দিন রিফাত

চেষ্টা, পরিশ্রম ও সততা মানুষকে সাফল্যের স্বর্ণশিখরে পৌঁছে দিতে পারে তারই প্রমাণ দিয়েছেন ৩৬তম বিসিএস পুলিশের প্রথমস্থান অধিকারকারী ভোলার ছেলে সালাহ্ উদ্দিন রিফাত। এরই মধ্যে ট্রেনিং শেষে প্রথম হয়ে বেষ্ট প্রবেশনার ও হর্সম্যানশিপ অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে।

প্রাথমিক থেকে এইচএসসি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন ভোলার বিভিন্ন সরকারি স্কুল-কলেজে। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অ্যাকাউন্টিংয়ে স্নাতক ও স্নাকোত্তর সম্পন্ন করেছেন তিনি।

কাজের প্রতি একনিষ্ঠতা ও নিজের প্রতি অর্পিত দায়িত্ব পালনে রিফাত কোর্স সিনিয়র হওয়ার প্রশিক্ষণের শুরু থেকেই অন্যদের মধ্যে কিছুটা ব্যতিক্রমী কার্যক্রম ও পরিশ্রমী মনভাব নিয়েই পার করেছেন পুরোটা সময়।

রিফাতের সাফল্য নিয়ে কথা হয় যুগান্তরের সঙ্গে। রিফাত বলেন, মহান আল্লাহর কৃপা পিতা-মাতা গুরুজনদের দোয়াই ছিল আমার সাফল্যের প্রধান হাতিয়ার। আমার সিনিয়র অফিসার ও বন্ধু-বান্ধবের অনুপ্রেরণার ঋণ আমি কখনও শোধ করতে পারব না। প্রথম হয়েই এসেছিলাম প্রথম হয়ে বের হতে চেয়েছিলাম।

রিফাত আরও বলেন, প্রশিক্ষণ শুরু করার পর প্রথম প্রথম অনেকটা কষ্ট করেই নিজেকে মানিয়ে নিতে হয়েছিল। পরে সহপাঠী ও সিনিয়রদের উৎসাহে অল্প সময়ের মধ্যেই নিজেকে খাপ খাইয়ে নিয়েছি।

তিনি মনে করেন যে কোনো ঘটনায় পুলিশ প্রথম রেসপন্স করতে পারেন। এ পেশাটি এমন একটি পেশা এখানে থেকে সরাসরি দেশসেবা ও জনগণের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করার সুযোগ সবচেয়ে বেশি। পুলিশের প্রতি মানুষের আস্থার ভীতটা শক্ত করতে চান পুলিশের এ কর্মকর্তা। কাজ করতে চান জনগণের বন্ধু হয়ে। নিজের সফলতার কথা বলতে বলতে বারবারই স্মরণ করেছেন ব্যাচমেটদের।

অনেকটা গর্ব করেই বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মতো এমন একজন মহান মানুষের হাত থেকে বেষ্ট প্রবেশনার হয়ে পুরস্কার নেয়া সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। যারা আমার সাফল্যের পেছনে উৎসাহ ও উদ্দীপনা জুগিয়েছেন। তাদের প্রতি আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব।
রিফাতের পরিবার জানান, রিফাত স্কুলজীবন থেকেই লেখাপড়া ও সমাজ সেবামূলক কাজে নিজেকে জড়িয়ে রেখেছিলেন।

বেষ্ট প্রবেশনার ও হর্সম্যানশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন এএসপি সালাহ্ উদ্দিন রিফাত

 নীল রতন, বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সালাহ্ উদ্দিন রিফাত
ক্যাপশন: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে বেষ্ট প্রবেশনার ও হর্সম্যানশিপ অ্যাওয়ার্ড পুরস্কার নিচ্ছেন সালাহ্ উদ্দিন রিফাত

চেষ্টা, পরিশ্রম ও সততা মানুষকে সাফল্যের স্বর্ণশিখরে পৌঁছে দিতে পারে তারই প্রমাণ দিয়েছেন ৩৬তম বিসিএস পুলিশের প্রথমস্থান অধিকারকারী ভোলার ছেলে সালাহ্ উদ্দিন রিফাত। এরই মধ্যে ট্রেনিং শেষে প্রথম হয়ে বেষ্ট প্রবেশনার ও হর্সম্যানশিপ অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে।   

প্রাথমিক থেকে এইচএসসি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন ভোলার বিভিন্ন সরকারি স্কুল-কলেজে। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অ্যাকাউন্টিংয়ে স্নাতক ও স্নাকোত্তর সম্পন্ন করেছেন তিনি। 

কাজের প্রতি একনিষ্ঠতা ও নিজের প্রতি অর্পিত দায়িত্ব পালনে রিফাত কোর্স সিনিয়র হওয়ার প্রশিক্ষণের শুরু থেকেই অন্যদের মধ্যে কিছুটা ব্যতিক্রমী কার্যক্রম ও পরিশ্রমী মনভাব নিয়েই পার করেছেন পুরোটা সময়। 

রিফাতের সাফল্য নিয়ে কথা হয় যুগান্তরের সঙ্গে। রিফাত বলেন, মহান আল্লাহর কৃপা পিতা-মাতা গুরুজনদের দোয়াই ছিল আমার সাফল্যের প্রধান হাতিয়ার। আমার সিনিয়র অফিসার ও বন্ধু-বান্ধবের অনুপ্রেরণার ঋণ আমি কখনও শোধ করতে পারব না।  প্রথম হয়েই এসেছিলাম প্রথম হয়ে বের হতে চেয়েছিলাম।  

রিফাত আরও বলেন, প্রশিক্ষণ শুরু করার পর প্রথম প্রথম অনেকটা কষ্ট করেই নিজেকে মানিয়ে নিতে হয়েছিল। পরে সহপাঠী ও সিনিয়রদের উৎসাহে অল্প সময়ের মধ্যেই নিজেকে খাপ খাইয়ে নিয়েছি। 

তিনি মনে করেন যে কোনো ঘটনায় পুলিশ প্রথম রেসপন্স করতে পারেন। এ পেশাটি এমন একটি পেশা এখানে থেকে সরাসরি দেশসেবা ও জনগণের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করার সুযোগ সবচেয়ে বেশি। পুলিশের প্রতি মানুষের আস্থার ভীতটা শক্ত করতে চান পুলিশের এ কর্মকর্তা। কাজ করতে চান জনগণের বন্ধু হয়ে। নিজের সফলতার কথা বলতে বলতে বারবারই স্মরণ করেছেন ব্যাচমেটদের। 

অনেকটা গর্ব করেই বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মতো এমন একজন মহান মানুষের হাত থেকে বেষ্ট প্রবেশনার হয়ে পুরস্কার নেয়া সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। যারা আমার সাফল্যের পেছনে উৎসাহ ও উদ্দীপনা জুগিয়েছেন। তাদের প্রতি আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব।   
রিফাতের পরিবার জানান, রিফাত স্কুলজীবন থেকেই লেখাপড়া ও সমাজ সেবামূলক কাজে নিজেকে জড়িয়ে রেখেছিলেন। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন