সরকারি ধান নিয়ে দ্বন্দ্বে ইউপি সদস্যের ছেলের হাতে আরেক সদস্যের ভাই নিহত

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

দ্বন্দ্ব
দ্বন্দ্ব। প্রতীকী ছবি

সরকারি গোডাউনে ধান বিক্রির স্লিপ নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে নারী ইউপি সদস্যের ছেলেদের হামলায় আরেক ইউপি সদস্যের ভাই নিহত হয়েছেন।

শনিবার লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী লোহাখুচি বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুর রহিম (৪৫) গোড়ল ইউনিয়নের দুলালী গ্রামের তালেব আলীর ছেলে।

নিহত ওই ব্যক্তি ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মফিজ উদ্দিনের মামাতো ভাই। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে নারী ইউপি সদস্য জাহানারা বেগমকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, কৃষকদের মাঝে সরবরাহের জন্য ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ইউপি সদস্যদের মাঝে সরকারি গোডাউনে ধান বিক্রির স্লিপ সরবরাহ করা হয়। সেই হিসেবে অন্যদের মতো ইউপি সদস্য মফিজ উদ্দিন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী ইউপি সদস্য জাহানারা বেগমও নির্দিষ্ট সংখ্যক স্লিপ বরাদ্দ পান।

তবে মফিজ উদ্দিনের বরাদ্দ থেকে জাহানারা বেগমের বড় ছেলে খালেকুজ্জামান মৌসুম স্লিপ দাবি করেন। কিন্তু মফিজ উদ্দিন সেই স্লিপ না দেয়ায় উভয়ের মধ্যে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। এরই জেরে শনিবার দুপুরের দিকে ইউপি সদস্য মফিজ লোহাখুচি বাজারে এলে তার সঙ্গে কথাকাটাকাটি শুরু হয় জাহানারা বেগমের ছেলে মৌসুম, সাগর ও টগরের।

পরে খবর পেয়ে সেখানে হাজির হয় মফিজ উদ্দিনের মামাতো ভাই আব্দুর রহিম ও তার ভাই গফুর বাদশা। এ সময় নারী ইউপি সদস্যের ছেলেরা ইউপি সদস্য মফিজের ওপর হামলা চালাতে গেলে এগিয়ে আসে রহিম ও তার ভাই।

ফলে তাদের দুজনকে বেদম মারপিট করে চলে যায় জাহানারাসহ তার ছেলেরা। পরে রহিমকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গোড়ল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুল ইসলাম জানান, ইউপি সদস্য জাহানারা বেগম পেয়েছিলেন তিনটি ও ইউপি সদস্য মফিজ উদ্দিন পেয়েছিলেন দুটি স্লিপ। মফিজের সেই স্লিপ দুটি দাবি করেছিল মৌসুম। আর এ নিয়েই উভয় পক্ষের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছিল।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাহানারা বেগমকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যামামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×