ভালোবেসে বাংলাদেশিকে বিয়ে, কথা রাখলেন মার্কিন নারী

  ফরিদপুর ব্যুরো ০৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৬:১৯:২৪ | অনলাইন সংস্করণ

বুধবার সিংকু-শ্যারন দম্পত্তির বিয়ে উপলক্ষে আয়োজন করা হয় বৌভাতের। ছবি-যুগান্তর

দেড় বছর আগে প্রেমের টানে বাংলাদেশে এসেছিলেন মার্কিন নারী শ্যারন (৪১)। ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন ফরিদপুরের যুবক আশরাফ উদ্দিস সিংকুকে (২৭)।

বিয়ের পর কয়েক দিন শ্যারন ফিরে যান নিজের দেশে। দীর্ঘ দিন পর সম্প্রতি আবার তিনি বাংলাদেশে এসেছেন।

এবার এই দম্পত্তির বিয়ে উপলক্ষে আয়োজন করা হয় বৌভাতের।

বুধবার জেলার কানাইপুর ইউনিয়নের ঝাউখোলা গ্রামে উৎসবমুখর পরিবেশে এ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। বৌভাতে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ প্রায় দুই শতাধিক অতিথি উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, দুই বছর আগে ফেসবুকে সিংকুর সঙ্গে নিউইয়র্কের বাসিন্দা ব্যাংকার শ্যারনের (৪১) পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

সেই প্রেমের টানে ২০১৮ সালের ৫ এপ্রিল বাংলাদেশে আসেন শ্যারন। এরপর ২০ এপ্রিল ঝাউখোলা গ্রামের আলাউদ্দিন মাতুব্বরের ছেলে সিংকুকে বিয়ে করেন তিনি।

বিয়ের কয়েকদিন পর শ্যারন আমেরিকায় ফিরে যান এবং সিংকু ও তার পরিবারকে কথা দিয়ে যান তিনি আবার বাংলাদেশে আসবেন।

তবে বৌভাত অনুষ্ঠানে শ্যারনের কোনো আত্মীয়-স্বজন উপস্থিত ছিলেন না।

বরের বাবা আলাউদ্দিন বলেন, বৌমা বাংলা কিছুটা বুঝতে শিখেছে। তার আচরণে মনেই হয় না সে ভিনদেশি কোনো নারী। পুত্রবধূকে ভালোবেসেই গ্রহণ করেছি।

সিংকু বলেন, আমি শ্যারনকে খুব ভালোবাসি। ও আমাকে অনেক ভালোবাসে। বৌভাত হয়ে গেছে। ৮ অক্টোবর সে আমেরিকায় চলে যাবে। এরপর আমার কাগজপত্র ঠিক হলে আমিও চলে যাব আমেরিকায়।

মার্কিন কনে শ্যারন বলেন, আমি বাংলাদেশকে অনেক ভালোবেসে ফেলেছি। আর ভালোবাসার প্রমাণ হিসেবেই এই বিয়ে। সিংকুর হাত ধরে আমি সারাজীবন কাটাতে চাই।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত