টঙ্গীবাড়ীতে ডাল্টা দিয়ে তৈরি হচ্ছে ঘি

  টঙ্গীবাড়ী (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি ০৬ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৪৭ | অনলাইন সংস্করণ

অবৈধ ঘি

টঙ্গীবাড়ী উপজেলার দীঘিরপাড় বাজারে সুধির চন্দ্র মিষ্টান্ন ভাণ্ডারে ডাল্টা দিয়ে ঘি ও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে মিষ্টি তৈরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমন খবরের ভিত্তিতে সম্প্রতি ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই বাজারে কয়েকবার অভিযান চালালে সুধির ঘোষের কর্মচারীরা আদালত পরিচালনার সময় দোকান বন্ধ করে সুকৌশলে পালিয়ে যায়।

সরেজমিন দীঘিরপাড় বাজারের সুধির ঘোষের মিষ্টি তৈরির কারখানায় গিয়ে দেখা যায় পুরো কারখানাটিতে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে ময়লা-আবর্জনা। ওই ময়লা-অবর্জনার মধ্যে বসে সুধির ঘোসের কর্মচারী মিষ্টি তৈরির জন্য ছানা তৈরি করছেন।

ওই কর্মচারী খালিগা থেকে ঘাম ওই ছানার মধ্যে ঝরে পরছে। ছানা তৈরির বড় গামলার মধ্যে অসংখ্য মাছি ঘ্যান ঘ্যান করছে। ছানা তৈরির এক পাশে বড় বড় ৩টি টিনের তৈরি করাইতে দুধ জাল দিয়ে ছানা তৈরির কাজ চলছে। আর ওই ছানার মধ্যে মাছি মরে ভেসে রয়েছে। লাকড়ির মধ্যে থাকা ধুলা এবং শ্রমিকের ঘাম ওই ছানা তৈরির করাইতে ঝরছে।

ঘরের মধ্যেই দেখা যায় বড় একটি টিনের বাক্সের মধ্যে রয়েছে ডাল্টা আর ওই ডাল্টা দিয়ে তৈরি করা হয় ঘি। এ সময় ওই দোকানে কর্মরত শ্রমিকদের ডাল্টা দিয়ে কি তৈরি করা হয় জিজ্ঞাসা করা হলে তারা ঘি তৈরির বিষয়টি অস্বীকার করে জানান এগুলো দিয়ে সকালে নাশতার ভাজি তৈরি করা হয়।

এ ব্যাপারে সুধির ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ডাল্টা দিয়ে ঘি তৈরির বিষয়টি অস্বীকার করেন এবং দোকানে মাছি থাকার ব্যাপারে জানান খাদ্য তৈরি করলে মাছিতো আসবেই।

এ ব্যাপারে টঙ্গীবাড়ী উপজেলা স্যানিটেশন অফিসার আনোয়ারুল ইসলাম জানান, আমি বারবার দোকান কর্মচারীদের গায়ে পোশাক পরিধান করে খাদ্য তৈরি করতে এবং পরিচ্ছন্ন পরিবেশ বজায় রাখতে বলেছি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×