সাবেক কনস্টেবলের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

  ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ১০ অক্টোবর ২০১৯, ২১:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দেন ফিরোজ আলম
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দেন ফিরোজ আলম

ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে পুলিশের এক সাবেক কনস্টেবলের বিরুদ্ধে হয়রানি ও মিথ্যা মামলার অভিযোগ তুলেছেন ভুক্তভোগী ফিরোজ আলম।

কোটচাঁদপুর পৌর পাঠাগার মিলনায়তনে শনিবার এক সংবাদ সম্মেলন এ তথ্য জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ফিরোজ আলম বলেন, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে আমার ছেলে রাব্বি আলম ডিজুর সঙ্গে কোটচাঁদপুর পূর্বপাড়ার সাবেক পুলিশ কনস্টেবল তাজুল ইসলামের মেয়ে নিতুর বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকেই সংসারে অশান্তি দেখা দেয়। দিন যত যায় অশান্তি বাড়তে থাকে।

নিতু পুলিশের মেয়ে হওয়ায় সে প্রায় সময় পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেয়ার ভয় দেখায়। এছাড়া সে স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়িকে গালিগালাজ করেন। এরপরও আমরা সংসার টেকানোর চেষ্টা করি। কিন্তু একদিন সে তার মাকে খবর দেয়। মা এলে বলে তার স্বামীর সঙ্গে আর ঘর সংসার করবে না।

তিনি বলেন, এরপর তারা বাসার সব মূল্যবান জিনিসপত্র গুছিয়ে নিয়ে যায়। বেধে রেখে যায় আরো মালামাল। এরপর কোনো উপায় না দেখে আমার ছেলে ডিজু আইন মোতাবেক তার কাবিন ও খোর পোশের টাকা ও তালাকনামা ১১ সেপ্টেম্বর ডাকযোগে পাঠিয়ে দেয়। ১১ সেপ্টেম্বর তারা ডাক ঘর থেকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা ও তালাক নামা গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, নিতু তার কাবিন ও খোর পোশের টাকা নেয়ার আগেই ডিজুসহ ৭ জনকে আসামি করে নারী নির্যাতন আইনে কোটচাঁদপুর থানায় মামলা করেন। যার মধ্যে ৬ জন জামিনে মুক্তি পেলেও ডিজু জেল হাজতে রয়েছে।

ফিরোজ আলম বলেন, ডিজু জেল থেকে জামিন পেলে পেন্ডিং মামলাসহ ফেনসিডিল, ইয়াবা মামলার হুমকি অব্যহত রেখেছেন তাজুল ইসলাম। এছাড়া তিনি (সাবেক পুলিশ কনস্টেবল তাজুল ইসলাম) আমার বিরুদ্ধে খুলনা আদালতে একটা মামলাও করেছেন। আরও মামলা দেয়ার হুমকি দিচ্ছেন ।

এ ধরনের হয়রানি ও মিথ্যা মামলা থেকে রেহাই পেতে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করেছেন ভুক্তভোগী ফিরোজ আণমের পরিবার।

সংবাদ সম্মেলনে ফিরোজ আলমের ভাই ভুট্টো ও তার ছোট ছেলে জিত উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সাবেক পুলিশ কনস্টেবল তাজুল ইসলামের মোবাইলে বারবার কল করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: j[email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×