মুক্তিপণ না পেয়ে খুন করে পাপ্পুর লাশ ফেলে দেয়া হয় পদ্মায়

  লৌহজং (মুন্সিগঞ্জ) প্রতিনিধি ১০ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৪৬ | অনলাইন সংস্করণ

মুন্সিগঞ্জ

মুক্তিপণের ২ কোটি টাকা না পেয়ে ঢাকা থেকে খুন করে কিশোর পাপ্পুর লাশ বস্তায় ভরে পিকআপ ভ্যানে করে লৌহজংয়ের পদ্মায় ফেলে দেয় ঘাতকরা।

খুনি এমন স্বীকারক্তি দেয়ায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে বুধবার বিকাল পর্যন্ত উপজেলার ঘোড়াদৌড় বাজার সংলগ্ন পদ্মা নদীতে সারা দিন ধরে কিশোর পাপ্পুর (১৪) লাশ খোঁজাখুঁজি করেন ঢাকা ও শ্রীনগর ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের ডুবুরি দলসহ নিহত পাপ্পুর আত্মীয়-স্বজনরা।

ঢাকা থেকে ডিবির একটি টিম খুনি রাজুকে নিয়ে লৌহজংয়ের পদ্মা নদীতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ও বুধবার দিনব্যাপী লাশের সন্ধান চালায়। এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত পদ্মা নদীতে পাপ্পুর লাশ উদ্বারে অভিযান চলছে।

নিহত পাপ্পুর ভাই ইমন জানান, ঢাকার ধোলাইপাড় এলাকায় তাদের নিজস্ব বাড়ি সেখানে ভাড়া থাকতেন রাজু। সেই থেকে রাজুর সঙ্গে পাপ্পুদের সম্পর্ক। এই সুযোগে রাজু পাপ্পুকে নিয়ে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়।

তিনি জানান, সারা দিন খোঁজাখুঁজির পর বৃহস্পতিবার রাতে রাজুর মোবাইল থেকে বলা হয় পাপ্পুকে অপহরণ করা হয়েছে। তাকে জীবিত পেতে চাইলে ২ কোটে টাকা দিতে হবে- এই কথা বলে মোবাইল ফোন কেটে দেয়া হয়।

পাপ্পু নিখোঁজের বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার আত্মীয়-স্বজনরা দেয় এবং তার পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকেও বিষয়টি জানানো হয়। ডিবির একটি টিম মোবাইল ফোনের নাম্বার ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে রাজুকে গাজীপুর থেকে আটক করলে বেরিয়ে আসে আসল রহস্য।

জিজ্ঞাসাবাদে রাজু জানায়, শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে একটি পিকাআপ ভ্যানে করে সাদা প্লাস্টিকের বস্তায় কাগজ ভরে এরপর পাপ্পুর লাশ ভরে রাজু ও তার বন্ধু নাদিম মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে ঘোড়াদৌড় বাজারে নিয়ে আসে। সেখানে তারা একটি রেস্টুরেন্টে দুপুরের খাবার খায় এরপর তারা ঘোড়াদৌড় বাজারের ট্রলার ঘাট থেকে একটি ট্রলার ভাড়া করে ১৫০ টাকায় পদ্মা পাড় হয়ে চরে যাওয়ার জন্য।

পিকাপ ভ্যান থেকে লাশের বস্তাটি ট্রলারে উঠিয়ে পদ্মা পার হয়ে কিছু দূর গিয়ে পাপ্পুর লাশভর্তি বস্তাটি কলার ভেলায় বেঁধে নদীতে ভাসিয়ে দেয় বলে ঘাতক রাজু জানায়।

তবে অপর ঘাতক নাদিম পলাতক রয়েছে বলে ডিবির কর্মকর্তারা জানান। পাপ্পুর লাশ উদ্বারের পর নাদিমকে ধরার অভিযানে নামবে তারা।

লাশের সন্ধ্যানে বুধবার সকাল থেকে নিহত পাপ্পুর স্বজনরা ভিড় করতে থাকে লৌহজংয়ের পদ্মার পাড়ে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×