'মানসিক রোগ বিষয়ে সচেতনতা এখন অনেক বেড়েছে’

  যুগান্তর রিপোর্ট ১০ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৫৩:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

মানসিক রোগ বিষয়ে সচেতনতা এখন অনেক বেড়েছে। দেহের যেমন রোগ হয়, মনেরও তেমন রোগ হয়। ব্রেইনের নানান নিউরোট্রান্সমিটার নিঃসরণের তারতম্যে এ রোগের সৃষ্টি হয়। এ রোগের লক্ষণ প্রকাশিত হয় রোগীর দৈনন্দিন নানা আচার ব্যবহারে। উন্নত বিশ্বে মানসিক রোগকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হয়। মনোরোগ নিয়ে লজ্জার কিছু নেই।

বৃহস্পতিবার বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস (১০ অক্টোবর) উপলক্ষে সিলেট বিভাগের স্বাস্থ্য পরিচালকের উদ্যোগে বৈজ্ঞানিক সেমিনারে মুখ্য আলোচক দেশের প্রখ্যাত মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. সাঈদ এনাম এসব কথা বলেন।

ডা. সাঈদ এনাম দেশের একমাত্র মনোরোগ বিশেষজ্ঞ যিনি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। তিনি সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন।

সিলেট বিভাগের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান সভাপতিত্বে এবং এম. ও. (সি এস) ডা. আমজাদ জিতুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বৈজ্ঞানিক সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. নুর-এ- আলম শামিম।

ডা. সাঈদ এনাম তার বক্তব্যে আরও বলেন, ডায়বেটিস, হাইপ্রেশার, হাঁপানির মতো মানসিক রোগ ও দীর্ঘ মেয়াদি এক রোগ যা চিকিৎসায় নিরাময় হয় অথবা সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রেখে দৈনন্দিন যাবতীয় কাজকর্মে অংশগ্রহণ করা যায়।

আমেরিকান নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. জন ন্যাশের উদাহরণ দিয়ে তিনি উল্লেখ করেন, 'মানসিক রোগ কে নিয়ন্ত্রণে রেখে পৃথিবীতে অনেক ব্যক্তিত্বের নোবেল জয় অর্জনের ও ইতিহাস রয়েছে'।

অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্যে সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান বলেন, সারা দেশে মানসিক রোগের সচেতনতা বৃদ্ধিতে মানসিক স্বাস্থ্য দিবস পালন পর্যাপ্ত ভূমিকা পালন করবে। তিনি বলেন, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাচ্ছে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিনিয়র শিক্ষা কর্মকর্তা, সুজন বনিক এবং মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন এম ও (ডিরেক্টর) ডা. শামিম আহমেদ।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত