বানরের প্রতি উপজেলা চেয়ারম্যান-ইউএনও-ওসির মমতা!
jugantor
বানরের প্রতি উপজেলা চেয়ারম্যান-ইউএনও-ওসির মমতা!

  কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০০:৩৫:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

কাশিয়ানী উপজেলা ভূমি অফিসের পাশে একটি ঘরের চালায় বানর
কাশিয়ানী উপজেলা ভূমি অফিসের পাশে একটি ঘরের চালায় বানর

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা ভূমি অফিসের পাশে একটি ঘরের চালায় হঠাৎ দেখা গেল একটি বানর। এটি ভূমি অফিসে উপস্থিত সবার নজর কাড়লো। 

এ সময় ভূমি অফিসের আঙিনায় বৃক্ষরোপণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসা কাশিয়ানী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুব্রত ঠাকুর, সহকারী কমিশনার ও ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মিন্টু বিশ্বাস, কাশিয়ানী থানার ওসি আজিজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী জাহাঙ্গীর আলম বানর দেখে দৌড়ে কাছে ছুটে গেলেন কলা-রুটি খাবার নিয়ে। 

এ সময় সহকারী কমিশনার ও ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মিন্টু তার অফিস সহকারীকে দিয়ে বাজার থেকে পাউরুটি ও কলা কিনে এনে বানরকে খেতে দিলেন। কিন্তু বানরটি তার স্বাভাবিক বাঁদরামো করেই যাচ্ছিল। এ সময় অসংখ্য উৎসুক মানুষ বানরের প্রতি এ আতিথেয়তার দৃশ্য দাঁড়িয়ে দেখছিলেন। 

অবুঝ প্রাণীর প্রতি অতিথিদের সহানুভূতি দেখে কাশিয়ানী উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজামুল আলম মোরাদ তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ‘আমি উপস্থিত অতিথিদের প্রাণির প্রতি এত ভালবাসা-মমতা দেখে আমি মুগ্ধ হয়ে গেছি।’

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মিন্টু বিশ্বাস বলেন, ‘মানুষ কেবল মানুষের প্রতি দয়া করবে এমনটি নয়, বরং পশুপাখির প্রতিও দয়া প্রদর্শন করতে হবে। আমার মনে হয়েছে ক্ষুধার্ত এ বানরটি দূরের কোনো এলাকা থেকে এসেছে। বানরটির ক্ষুধা নিবারণ করতে পেরে আমার ভালোই লাগছে।’ 

বানরের প্রতি উপজেলা চেয়ারম্যান-ইউএনও-ওসির মমতা!

 কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৩৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কাশিয়ানী উপজেলা ভূমি অফিসের পাশে একটি ঘরের চালায় বানর
কাশিয়ানী উপজেলা ভূমি অফিসের পাশে একটি ঘরের চালায় বানর

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা ভূমি অফিসের পাশে একটি ঘরের চালায় হঠাৎ দেখা গেল একটি বানর। এটি ভূমি অফিসে উপস্থিত সবার নজর কাড়লো।

এ সময় ভূমি অফিসের আঙিনায় বৃক্ষরোপণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসা কাশিয়ানী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুব্রত ঠাকুর, সহকারী কমিশনার ও ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মিন্টু বিশ্বাস, কাশিয়ানী থানার ওসি আজিজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী জাহাঙ্গীর আলম বানর দেখে দৌড়ে কাছে ছুটে গেলেন কলা-রুটি খাবার নিয়ে।

এ সময় সহকারী কমিশনার ও ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মিন্টু তার অফিস সহকারীকে দিয়ে বাজার থেকে পাউরুটি ও কলা কিনে এনে বানরকে খেতে দিলেন। কিন্তু বানরটি তার স্বাভাবিক বাঁদরামো করেই যাচ্ছিল। এ সময় অসংখ্য উৎসুক মানুষ বানরের প্রতি এ আতিথেয়তার দৃশ্য দাঁড়িয়ে দেখছিলেন।

অবুঝ প্রাণীর প্রতি অতিথিদের সহানুভূতি দেখে কাশিয়ানী উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজামুল আলম মোরাদ তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ‘আমি উপস্থিত অতিথিদের প্রাণির প্রতি এত ভালবাসা-মমতা দেখে আমি মুগ্ধ হয়ে গেছি।’

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মিন্টু বিশ্বাস বলেন, ‘মানুষ কেবল মানুষের প্রতি দয়া করবে এমনটি নয়, বরং পশুপাখির প্রতিও দয়া প্রদর্শন করতে হবে। আমার মনে হয়েছে ক্ষুধার্ত এ বানরটি দূরের কোনো এলাকা থেকে এসেছে। বানরটির ক্ষুধা নিবারণ করতে পেরে আমার ভালোই লাগছে।’