উখিয়ায় দুই রোহিঙ্গা খুন, আটক ৯

  উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি ০২ মার্চ ২০১৮, ২২:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

কুতুপালং

উখিয়ার ডাকাতরা কুতুপালং ক্যাম্পের ৭ রোহিঙ্গাকে অপহরণ করে মুক্তিপণ না দেয়ায় আবু তাহের (৩০) নামে এক যুবককে হত্যা করেছে। এদিকে থাইংখালী জামতলি বাঘঘোনা কবরস্থান এলাকা থেকে এক রোহিঙ্গা কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ অভিযান চালিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ৯ জনকে আটক করেছে। উদ্ধার করেছে অপহৃত বাকি ৬ রোহিঙ্গাকে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে।

পুলিশ জানায়, কুতুপালং ক্যাম্পে এসে একদল ডাকাত আশ্রিত রোহিঙ্গা রমিজ (১৬) আইয়ুব (১৯) নবী হোসেন (২০) খাইরুল আমিন (২৫) মো. নুর (২৫) আব্দুল আলিম (৩০) ও আবু তাহেরসহ (৩০) সাতজনকে অপহরণ করে কুতুপালং তুর্কি পাহাড় এলাকায় নির্জন স্থানে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে বালুখালী ক্যাম্পের হাফিজুর রহমান (১৮) ইউনূছ (১৭) জিয়াবুল মাঝি (২৪) ওয়াইয়া (১৬) মো. সেলিম (২৪) আমির হোসেন (১৯) শফিক (১৬) ও শামসুল আলমকে আটক করা হয়েছে।

উখিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাকসুদ আলম জানান, আটককৃত ৯ ডাকাতের কাছ থেকে দা, ছুরি,লোহার রডসহ বিভিন্ন অস্ত্রশস্ত্র পাওয়া গেছে। উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত বাকি ৬ জনকে। এ ব্যাপারে উখিয়া থানায় অপহরণ, হত্যা ও ডাকাতির চেষ্টায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অপরদিকে উখিয়া থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার ভোররাতে থাইংখালী জামতলি বাঘঘোনা কবরস্থান এলাকা থেকে মনির আহমদের ছেলে মো. হেফজুর রহমান (১৬) নামে এক রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

উখিয়া থানার ওসি মো. আবুল খায়ের জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা

 

 

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.