যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশের পর সেই বৃদ্ধকে প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি উপহার

  পায়রাবন্দর (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি ২৬ অক্টোবর ২০১৯, ২২:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

সেই বৃদ্ধ দম্পতি
সেই বৃদ্ধ দম্পতি। ছবি: যুগান্তর

যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশের পর প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে ঘর ও জমি বরাদ্দ পেলেন গোয়ালঘরে অবস্থান নেয়া সেই বৃদ্ধ দম্পতি।

ছেলের প্রতারণায় সর্বহারা হয়ে শুকুর দেওয়ান ও সহুরা বেগম নামের এই বৃদ্ধ দম্পতি আশ্রয় নিয়েছিলেন বাড়ির পাশের একটি গোয়ালঘরে। সেখানে এক মাস ধরে মানবেতর জীবনযাপন করে আসছিলেন তারা।

এ নিয়ে ২৫ অক্টোবর যুগান্তরে ‘পাঁচ সন্তান থাকলেও ঠাঁই হয়নি, বৃদ্ধ দম্পতি থাকেন পাশের বাড়ির গোয়ালঘরে’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

যুগান্তরের সংবাদটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে এলে তিনি পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মহিবকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দুর্যোগ সহনীয় একটি ঘর ও এক একর জমি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান সংসদ সদস্য।

এছাড়াও যুগান্তর প্রতিবেদক জাবির হোসেনের সঙ্গে পরামর্শের মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে বৃদ্ধ ওই দম্পতিকে উদ্ধার করে একটি বাড়িতে থাকার ব্যবস্থা করেন সংসদ সদস্য মহিব। এদিকে সংবাদটি জেলা প্রশাসক মতিউল আলম চৌধুরীর নজরে এলে তিনি রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, ‘সংবাদটি দেখার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমাকে জেলা প্রশাসক নির্দেশ দেন। আমি তাৎক্ষণিকভাবে ওই বৃদ্ধাদের জন্য ১০ হাজার টাকা দিই।

এরপর এমপির নির্দেশনা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে একটি দুর্যোগ সহনীয় ঘর ও জমি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ইতিমধ্যেই আমরা ঘরটি নির্মাণের কাজ শুরু করেছি। এখন এই তাদের আর কোনো সমস্যা নেই।’

সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মহিব জানান, বৃদ্ধ দম্পতির মানবেতর জীবনযাপনের সংবাদটি যুগান্তরে দেখেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তার কার্যালয় থেকে আমাকে মুঠোফোনে বলা হয়। আমি তাৎক্ষণিক লোক পাঠিয়ে ওই বৃদ্ধ দম্পতিদের উদ্ধার করে একটি বাড়িতে থাকা ও খাবারের ব্যবস্থা করেছি।

তাদের জন্য দুর্যোগ সহনীয় একটি ঘর নির্মাণের কাজ চলছে। তাদের সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত দেয়ার কার্যক্রম চলছে। এছাড়াও বয়স্ক ভাতাসহ সরকারের সব সুযোগ-সুবিধা পাবেন এ বৃদ্ধ দম্পতি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×