খাতুনগঞ্জে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি, ২ আড়তদারকে জরিমানা

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ০৬ নভেম্বর ২০১৯, ২২:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

খাতুনগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান
খাতুনগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

চট্টগ্রামের পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রি করায় মাহিন এন্টারপ্রাইজ নামে একটি আড়তদারকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার দুপুরে এ জরিমানা করা হয়।

মিসর ও চীনের পেঁয়াজ ৪০-৪৫ টাকা আমদানি মূল্য হলেও পাইকারিতে ৫০ টাকায় বিক্রি করার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু মাহিন এন্টারপ্রাইজ বেশি দামে বিক্রি করছিল। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি কোনো আমদানির কাগজপত্র দেখাতে পারেনি।

এদিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পর খুচরা বাজারে কিছুটা প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। ভারতীয় পেঁয়াজ খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ১২০ টাকা। পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১০৫ টাকা থেকে ১০৮ টাকা দরে।

পাইকারি বাজারে মিয়ানমারের পেঁয়াজ ৯৫ টাকা থেকে ১০০ টাকা কেজিপ্রতি। আর মিসরের পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ৯০ টাকা থেকে ৯৮ টাকা।

খুচরা বাজারে মিয়ানমারের পেঁয়াজ ১০০ টাকা থেকে ১১০ টাকা কেজিপ্রতি। আর মিসর থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ৯৫ টাকা থেকে ১০০ টাকা। তবে মানভেদে ৫ টাকা থেকে ১০ টাকা কম-বেশি রয়েছে।

তবে চট্টগ্রামের উপজেলাগুলোতে পেঁয়াজের দাম আরও বেশি। প্রশাসনের নজরদারির অভাবে উপজেলার মুদির ও কাঁচা বাজারগুলোতে নিয়ন্ত্রণহীন পেঁয়াজের বাজার।

নগরীতে পেঁয়াজের কারসাজি করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করলেও উপজেলাগুলোতে প্রশাসনের তেমন তৎপরতা নেই। ফলে উপজেলাগুলোতে পেঁয়াজের দাম লাগামহীন।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল আলম যুগান্তরকে বলেন, পেঁয়াজের দাম কারসাজি ঠেকাতে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। মিসর ও চীনের পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৪০-৪৫ টাকা আমদানি মূল্য হলেও পাইকারিতে ৫০ টাকায় বিক্রি করার কথা। কিন্তু মাহিন এন্টারপ্রাইজে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করছিল। একই সঙ্গে তারা কোনো আমদানির কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। ফলে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×