জীবননগর থানার সেই ওসি প্রত্যাহার
jugantor
জীবননগর থানার সেই ওসি প্রত্যাহার

  জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি  

১১ নভেম্বর ২০১৯, ২২:৩৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ওসি শেখ গণি মিয়া

মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ও দায়িত্ব-কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর থানার ওসি শেখ গণি মিয়াকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

সোমবার বিকালে তাকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, মাদক ব্যবসায়ীদের মাদক বিক্রিতে বাধা না দেয়াসহ তার দায়িত্ব সম্পূর্ণরূপে পালন না করার অভিযোগ পাওয়া যায় ওসি শেখ গণি মিয়ার বিরুদ্ধে।

এ ছাড়া মাদকবিরোধী অভিযানে তার ব্যর্থতার প্রমাণ পাওয়া যায়। সেই সঙ্গে পুলিশ বাহিনীতে তার অধীনস্থ পুলিশ সদস্যদের অসৎ কাজ থেকে বিরত রাখতে না পারার অভিযোগও পাওয়া যায় ওসি গণি মিয়ার বিরুদ্ধে।

চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ও দায়িত্বে-কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে জীবননগর থানার ওসি শেখ গণি মিয়াকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে তার অধীনস্থ পুলিশ সদস্যরা মাদকের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগও পাওয়া যায়। এর দায় থানার ওসি এড়াতে পারে না। সে জন্য তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, মাদকের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িত জেলার কোনো পুলিশ সদস্যকেই ছাড় দেয়া হবে না। শুধু মাদকই নয়, বরং পুলিশকে যে কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ পেলে প্রমাণসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

একই অভিযোগে রোববার রাতে জীবননগর থানার সাহাপুর ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সাহিদুজ্জামানকেও প্রত্যাহার করা হয়।

জীবননগর থানার সেই ওসি প্রত্যাহার

 জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি 
১১ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ওসি শেখ গণি মিয়া
ওসি শেখ গণি মিয়া। ফাইল ছবি

মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ও দায়িত্ব-কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর থানার ওসি শেখ গণি মিয়াকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

সোমবার বিকালে তাকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, মাদক ব্যবসায়ীদের মাদক বিক্রিতে বাধা না দেয়াসহ তার দায়িত্ব সম্পূর্ণরূপে পালন না করার অভিযোগ পাওয়া যায় ওসি শেখ গণি মিয়ার বিরুদ্ধে।

এ ছাড়া মাদকবিরোধী অভিযানে তার ব্যর্থতার প্রমাণ পাওয়া যায়। সেই সঙ্গে পুলিশ বাহিনীতে তার অধীনস্থ পুলিশ সদস্যদের অসৎ কাজ থেকে বিরত রাখতে না পারার অভিযোগও পাওয়া যায় ওসি গণি মিয়ার বিরুদ্ধে। 

চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ও দায়িত্বে-কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে জীবননগর থানার ওসি শেখ গণি মিয়াকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে তার অধীনস্থ পুলিশ সদস্যরা মাদকের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগও পাওয়া যায়। এর দায় থানার ওসি এড়াতে পারে না। সে জন্য তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

তিনি আরও  জানান, মাদকের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িত জেলার কোনো পুলিশ সদস্যকেই ছাড় দেয়া হবে না। শুধু মাদকই নয়, বরং পুলিশকে যে কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ পেলে প্রমাণসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

একই অভিযোগে রোববার রাতে জীবননগর থানার সাহাপুর ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই  সাহিদুজ্জামানকেও প্রত্যাহার করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন