‘ভাইয়া আমাকে বাঁচান’ যুগান্তর প্রতিনিধির কাছে ছাত্রীর আকুতি

  লালমোহন (ভোলা) প্রতিনিধি ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ২২:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

ছাত্রীর বাবা ও মায়ের সঙ্গে কথা বলেন লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবীর
ছাত্রীর বাবা ও মায়ের সঙ্গে কথা বলেন লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবীর

‘ভাইয়া আমাকে বাঁচান, আমার বাবা-মা জোড় করে আমাকে বিয়ে দিতে চাইছে। কিন্তু আমি পড়ালেখা করতে চাই।’

মোবাইল ফোনে এমন আকুতির কথা যুগান্তরের লালমোহন প্রতিনিধির কাছে জানালেন নবম শ্রেণির এক ছাত্রী। সে লালমোহন সদর ইউনিয়নের একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

ফোনে মেয়েটি আরও জানায়, তার বাবা-মা তাকে অনেকদিন পর্যন্ত স্কুলেও যেতে দিচ্ছে না।

লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবীরকে এমন ফোনের কথা জানালে তিনি সোমবার দুপুরে ওই ছাত্রীর বাড়িতে যান। ওসির হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে নবম শ্রেণির ওই স্কুলছাত্রী। পরে তারা ওসিকে ওয়াদা দেন প্রাপ্ত বয়স না হলে মেয়েকে বিয়ে দিবে না।

ওসি মীর খায়রুল কবীর বলেন, নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বিয়ে দেয়ার কথাবার্তা বলছে তার পরিবার। ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে তার বাবা-মাকে প্রাপ্তবয়স না হলে মেয়েকে বিয়ে না দিতে সর্তক করা হয়। এ ছাড়াও ওই ছাত্রীর অধ্যায়নরত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককেও মেয়েটির পড়ালেখায় বিশেষ সুযোগ দেয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×