বগুড়ায় এক হাজার পিস ইয়াবাসহ র‌্যাব সদস্য গ্রেফতার
jugantor
বগুড়ায় এক হাজার পিস ইয়াবাসহ র‌্যাব সদস্য গ্রেফতার

  বগুড়া ব্যুরো  

০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩:০৮:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় এক হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ শাহিনুর রহমান (৩৮) নামে এক র‌্যাব সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার বিকালে উপজেলার ডোমনপুকুর টিকাদারপাড়া এলাকায় বিক্রির সময় তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

শাজাহানপুর থানার ওসি আজিম উদ্দিন এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এসআই ওবায়দুল আল মামুন জানান, শাহিনুর রহমান র‌্যাব-৬ খুলনায় কর্মরত। তিনি গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় শিমুলতাইর গ্রামের মৃত বারেক সরকারের ছেলে। বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার ডোপনপুকুর নতুনপাড়া গ্রামে প্রায় ১০ বছর ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে থাকেন। তিনি ছুটিতে বাসায় আসেন।

সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে শাহিনুর রহমান ডোমনপুকুর টিকাদারপাড়া এলাকায় অবস্থান করছিলেন। গোপনে খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছে বিক্রির জন্য আনা ১ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। এরপর তাকে থানায় আনা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রির সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন বলে জানান এসআই ওবায়দুল আল মামুন।

বগুড়ায় এক হাজার পিস ইয়াবাসহ র‌্যাব সদস্য গ্রেফতার

 বগুড়া ব্যুরো 
০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় এক হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ শাহিনুর রহমান (৩৮) নামে এক র‌্যাব সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার বিকালে উপজেলার ডোমনপুকুর টিকাদারপাড়া এলাকায় বিক্রির সময় তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

শাজাহানপুর থানার ওসি আজিম উদ্দিন এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এসআই  ওবায়দুল আল মামুন জানান, শাহিনুর রহমান র‌্যাব-৬ খুলনায় কর্মরত। তিনি গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় শিমুলতাইর গ্রামের মৃত বারেক সরকারের ছেলে। বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার ডোপনপুকুর নতুনপাড়া গ্রামে প্রায় ১০ বছর ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে থাকেন। তিনি ছুটিতে বাসায় আসেন।

সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে শাহিনুর রহমান ডোমনপুকুর টিকাদারপাড়া এলাকায় অবস্থান করছিলেন। গোপনে খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছে বিক্রির জন্য আনা ১ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। এরপর তাকে থানায় আনা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রির সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন বলে জানান এসআই  ওবায়দুল আল মামুন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন