ভাণ্ডারিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু
jugantor
ভাণ্ডারিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু

  ভাণ্ডারিয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি  

০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ২০:১০:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলায় পুকুরে কচুরিপানা পরিষ্কার করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ইব্রাহিম মাতুবব্বর ও আল আমিন খান নামে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার ইকড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ইব্রাহিম মাতুবব্বর (৪০) ইকড়ি গ্রামের মৃত ফেরেস্তআলী মাতুব্বরের ছেলে ও আল আমিন খান (৩০) একই গ্রামের হারুন খানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে এ দুই শ্রমিক ইকড়ি গ্রামের হাফেজ মোস্তফার বাড়ির পুকুরে কচুরিপানা পরিষ্কার করতে যায়। এ সময় লোহাররড দিয়ে পুকুর থেকে কচুরিপানা তুলতে গিয়ে পল্লী বিদ্যুত লাইনের সঙ্গে লোহার রড লেগে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তারা মারা যায়।

তাৎক্ষনিক ভাবে তাদেরকে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রঞ্জন কুমার বর্মণ তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ইকড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবির ও ইউপি সদস্য মো. জামাল হোসেন জানান, পল্লী বিদ্যুতের এ লাইনটি খুবই নিচু এলাকায় স্থাপন করায় দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

এলকাবাসী অনতিবিলম্বে এ ঝুঁকিপূর্ণ বৈদ্যুতিক লাইনটি নিরাপদ দূরত্বে স্থাপনের দাবি জানান।

পিরোজপুরের পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম লিটন চন্দ্র দে জানান, বিষয়টি শুনেছি তবে এ লাইনটি মঠবাড়িয়া উপজেলার সাফা এলাকা থেকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এ লাইনটি  মঠবাড়িয়া অফিসের নিয়ন্ত্রণে।

ভাণ্ডারিয়া থানার ওসি তদন্ত ফরিদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ভাণ্ডারিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু

 ভাণ্ডারিয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি 
০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলায় পুকুরে কচুরিপানা পরিষ্কার করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ইব্রাহিম মাতুবব্বর ও আল আমিন খান নামে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার ইকড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ইব্রাহিম মাতুবব্বর (৪০) ইকড়ি গ্রামের মৃত ফেরেস্তআলী মাতুব্বরের ছেলে ও আল আমিন খান (৩০) একই গ্রামের হারুন খানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে এ দুই শ্রমিক ইকড়ি গ্রামের হাফেজ মোস্তফার বাড়ির পুকুরে কচুরিপানা পরিষ্কার করতে যায়। এ সময় লোহাররড দিয়ে পুকুর থেকে কচুরিপানা তুলতে গিয়ে পল্লী বিদ্যুত লাইনের সঙ্গে লোহার রড লেগে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তারা মারা যায়।

তাৎক্ষনিক ভাবে তাদেরকে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রঞ্জন কুমার বর্মণ তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ইকড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবির ও ইউপি সদস্য মো. জামাল হোসেন জানান, পল্লী বিদ্যুতের এ লাইনটি খুবই নিচু এলাকায় স্থাপন করায় দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

এলকাবাসী অনতিবিলম্বে এ ঝুঁকিপূর্ণ বৈদ্যুতিক লাইনটি নিরাপদ দূরত্বে স্থাপনের দাবি জানান।

পিরোজপুরের পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম লিটন চন্দ্র দে জানান, বিষয়টি শুনেছি তবে এ লাইনটি মঠবাড়িয়া উপজেলার সাফা এলাকা থেকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এ লাইনটি মঠবাড়িয়া অফিসের নিয়ন্ত্রণে।

ভাণ্ডারিয়া থানার ওসি তদন্ত ফরিদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন