মহম্মদপুরে পল্লী বিদ্যুতের গাফিলতিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
jugantor
মহম্মদপুরে পল্লী বিদ্যুতের গাফিলতিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

  মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি  

০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:৪০:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরা মহম্মদপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে অরশিদ রায় নামের এক ব্যক্তির একটি টিনের ঘর, নগদ টাকা, আসবাবপত্র, মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার পলাশবাড়িয়া ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অরশিদ রায় জানান, পল্লী বিদ্যুতের হাই ভোল্টেজের মেইন লাইনের তার ছিড়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে বসতঘরের ওপর পড়ে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ঘরের চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। মহম্মদপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই সবকিছু পুড়ে শেষ হয়ে যায়। এতে ঘরের ভেতরে ২০ মণ পাট, ধান,  টেলিভিশন, ফ্রিজ, নগদ টাকা, আসবাবপত্র ও অন্যান্য মালামালসহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।

তিনি বলেন, পল্লী বিদ্যুতের কর্মীদের গাফিলতির কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। কারণ বসতঘরের ওপরে মেইন লাইনের তার ছিঁড়ে থাকা দেখে অনেক দিন আগেই কর্তৃপক্ষকে মৌখিকভাবে জানালে তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।

মহম্মদপুর পল্লী বিদ্যুতের সাব-জোনাল অফিসের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার গোলাম কবির বলেন, তার ছিঁড়ে থাকার বিষয়টি আমাদের জানা নেই বা জানানো হয়নি। তার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন।

মহম্মদপুরে পল্লী বিদ্যুতের গাফিলতিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

 মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি 
০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরা মহম্মদপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে অরশিদ রায় নামের এক ব্যক্তির একটি টিনের ঘর, নগদ টাকা, আসবাবপত্র, মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার পলাশবাড়িয়া ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অরশিদ রায় জানান, পল্লী বিদ্যুতের হাই ভোল্টেজের মেইন লাইনের তার ছিড়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে বসতঘরের ওপর পড়ে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ঘরের চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। মহম্মদপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই সবকিছু পুড়ে শেষ হয়ে যায়। এতে ঘরের ভেতরে ২০ মণ পাট, ধান, টেলিভিশন, ফ্রিজ, নগদ টাকা, আসবাবপত্র ও অন্যান্য মালামালসহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।

তিনি বলেন, পল্লী বিদ্যুতের কর্মীদের গাফিলতির কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। কারণ বসতঘরের ওপরে মেইন লাইনের তার ছিঁড়ে থাকা দেখে অনেক দিন আগেই কর্তৃপক্ষকে মৌখিকভাবে জানালে তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।

মহম্মদপুর পল্লী বিদ্যুতের সাব-জোনাল অফিসের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার গোলাম কবির বলেন, তার ছিঁড়ে থাকার বিষয়টি আমাদের জানা নেই বা জানানো হয়নি। তার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন।