আ’লীগের দুগ্রুপের গোলাগুলিতে আর বিয়ে করা হল না প্রবাসী যুবকের

  ছাগলনাইয়া (ফেনী) প্রতিনিধি ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

সংঘর্ষের পর সড়ক অবরোধ
সংঘর্ষের পর সড়ক অবরোধ

বালু ব্যবসা নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফেনীর ছাগলনাইয়ার সমিতি বাজারে প্রতিপক্ষের গুলিতে সিরাজুল ইসলাম (৩০) নামে এক প্রবাসী নিহত হয়েছেন।

রোববার বিকালে সমিতি বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সিরাজুল ইসলাম উপজেলার ঘোপাল ইউনিয়নের নিজকঞ্জুরা গ্রামের আবদুল কাদেরের ছেলে। তিনি কিছুদিন আগে দেশে এসেছিলেন বিয়ে করার জন্য।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সমিতি বাজারে ব্যারিকেড দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। এ সময় ১০/১২টি গাড়ি ভাঙচুর করেছে বিক্ষুব্ধরা।

খবর পেয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘণ্টাখানেক পর আবার যান চলাচল শুরু হয়। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে ঘোপাল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান এফএম আজিজুল হক মানিকের সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক সমিতির বাজার এলাকার জুলফিকুল সিদ্দিকীর মধ্য বালু ব্যবসাসহ আধিপত্য নিয়ে বিরোধ চলছিল। কিছু দিন আগেও সমিতি বাজার এলাকায় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

রোববার সমিতি বাজার একটি কুলিং কর্নারে বসা ছিলেন পারভেজ ও জিহান। এরা জুলফিকুলের সমর্থিত।

নিজকনজুরা গ্রামের শহিদ জানান, চার সিএনজি যোগে বাদশা ও শামিমের নেতৃত্বে একদল যুবক কুলিং কর্নারে ঢুকে পারভেজ ও জিহানের ওপর হামলা চালায়। এসময় পারভেজকে রক্ষা করতে গিয়ে দুর্বৃত্তের গুলিতে ঘটনাস্থলে সিরাজুল ইসলাম নিহত হন।

জুলফিকুল সিদ্দিকী অভিযোগ করেন, মানিক চেয়ারম্যানের লোকজন এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। হামলাকারীরা সবাই মাদকসেবী।

তবে মানিক চেয়ারম্যান এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত সবাই জুলফিকুলের লোক। মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মিছিল করেছেন স্থানীয়রা।

নিহত সিরাজুল ইসলামের বাবা আবদুল কাদের জানান, কিছুদিন আগে তার ছেলে প্রবাস থেকে বিয়ে করার জন্য দেশে এসেছেন। তিনি হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে এসেছেন। প্রাথমিকভাবে তারা জেনেছেন দুর্বৃত্তদের গুলিতে একজন নিহত হয়েছেন। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে বলে তিনি জানান।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

 
×