বাফুফে নারী ফুটবলার ও রেফারির অভিযোগের ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ

  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:১৬:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

নারী ফুটবলার ও রেফারি তাহমিনা আক্তার

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবলার ও রেফারি তাহমিনা আক্তারকে একই গ্রামের কাইয়ূম মিয়ার ছেলে আলিফসহ ৪ বখাটে যুবক বুধবার বিকালে স্থানীয় থোল্লাকান্দি ঈদগাহ সংলগ্ন রাস্তায় ইভটিজিং করে।

এ ঘটনায় অভিযোগ দেয়ার পরও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় তার পরিবার ও ক্রীড়ামোদীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

তাহমিনা আক্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার থোল্লাকান্দি গ্রামের মৃত রহিম মিয়ার মেয়ে।

এ দিকে নবীনগর থানায় অভিযোগ করায় বখাটেরা তাহমিনার পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে।

তাহমিনা আক্তার সোমবার জানান, আমি গত সোমবার ঢাকা থেকে বাড়িতে আসি। ঘটনার দিন ওই দিকে যাওয়ার সময় বখাটে আলিফসহ ৪ বখাটে আমাকে উত্ত্যক্ত করে। এ ঘটনা লিখিতভাবে নবীনগর থানার ওসিকে জানানোর পরও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। আমি আপনাদের কাছে বিচার চাই।

তবে এ ব্যাপারে নবীনগর থানা ওসি রণোজিত রায় বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। পুলিশ অলরেডি মাঠে রয়েছে।

উল্লেখ্য, নবীনগরের মেয়ে তাহমিনা আক্তার রাজধানীর এমারত হোসেন আদর্শ উচ্চবিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ছে। কিন্তু অল্প বয়সেই রেফারিংয়ের শখ পেয়ে বসেছে তাকে। এক সময় স্বপ্ন দেখত চিকিৎসক হওয়ার। কিন্তু সেই স্বপ্ন মোড় নিয়েছে ফুটবল রেফারিংয়ে। ছোটবেলায় বাবাকে হারিয়েছে।

সৌদি আরবে কর্মরত বাবা সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর তাহমিনার মা যেন অকূল দরিয়ায় পড়েছিলেন। কিন্তু ফুটবল খেলতে খেলতেই একদিন ফেডারেশনের তালিকাভুক্ত রেফারি শহীদুল ইসলামের সঙ্গে পরিচয় তার। তার অনুপ্রেরণাতেই ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ার সময় ফুটবল রেফারিং শুরু করে।

এ জন্য অবশ্য ফিফার বিভিন্ন রেফারি কোর্স করতে হয়েছে তাহমিনাকে। এ পর্যন্ত রেফারিং ক্যারিয়ারে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা স্কুল ফুটবল টুর্নামেন্টে ৪টি ম্যাচ পরিচালনা করেছে তাহমিনা। পাইওনিয়ার ফুটবল লিগে ছেলেদের ৩৯টি ম্যাচে ছিল প্রধান ও সহকারী রেফারির ভূমিকায়।

এ ছাড়া জেএফএ কাপ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবলেও প্রায় ২০টি ম্যাচ পরিচালনা করেছে নবীনগরের থোল্লাকান্দি গ্রামের এই তাহমিনা আক্তার।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত