মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের ঝুলন্ত লাশ
jugantor
মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের ঝুলন্ত লাশ

  মাগুরা প্রতিনিধি  

১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:১৪:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের ঝুলন্ত লাশ
মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের ঝুলন্ত লাশ। ছবি-যুগান্তর

মাগুরায় সদর উপজেলার বাটাজোড় গ্রামে ঘরের মধ্যে পিংকি নামে এক গৃহবধূ ও সাগর নামে অপর এক যুবকের একই ওড়নায় ঝুলানো দুটি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

অনৈতিক সম্পর্কের জেরে তাদের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশের দাবি। তবে এটি আত্মহত্যা না পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড সেটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূ পিংকি (১৯) বাটাজোড় গ্রামের রামপ্রসাদ প্রামাণিকের স্ত্রী এবং সাগর (২২) ঝিনাইদহ জেলার উপজেলা সদরের শ্যামল বিশ্বাসের ছেলে। সম্পর্কে তারা বেয়াই-বেয়াইন।

এলাকাবাসী জানায়, বুধবার দুপুরে গৃহবধূ পিংকি তার বাবার বাড়ি নড়াইল থেকে শ্বশুরবাড়ি বাটাজোড় গ্রামে আসে। 

অপরদিকে একই দিনে পিংকির বড় ভাইয়ের শ্বশুর বাড়ির আত্মীয় সাগর বিশ্বাস ঝিনাইদহ থেকে পিংকিদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। 

কিন্তু সন্ধ্যায় বাজার থেকে ফিরে পিংকির স্বামী রামপ্রসাদ ঘরের মধ্যে একই ওড়নায় তাদের ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। 

পরে পুলিশকে খবর দেয়া হলে রাত ১০টার দিকে লাশ দুটি উদ্ধার করে তারা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

মাগুরা সদর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, ঘরের দরজা বন্ধ দেখে পরিবারের লোকজনের কাছে বিষয়টি সন্দেহ হলে দরজা ভেঙে তারা পিংকি এবং সাগরকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। 

প্রাথমিক তদন্তে এটি আত্মহত্যার ঘটনা বলেই মনে হচ্ছে। তবে উভয়ের মধ্যকার অনৈতিক সম্পর্কের জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। ময়না তদন্তের পর বিষয়টি পরিষ্কার হওয়া যাবে বলে জানান তিনি। 

মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের ঝুলন্ত লাশ

 মাগুরা প্রতিনিধি 
১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:১৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের ঝুলন্ত লাশ
মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের ঝুলন্ত লাশ। ছবি-যুগান্তর

মাগুরায় সদর উপজেলার বাটাজোড় গ্রামে ঘরের মধ্যে পিংকি নামে এক গৃহবধূ ও সাগর নামে অপর এক যুবকের একই ওড়নায় ঝুলানো দুটি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

অনৈতিক সম্পর্কের জেরে তাদের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশের দাবি। তবে এটি আত্মহত্যা না পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড সেটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূ পিংকি (১৯) বাটাজোড় গ্রামের রামপ্রসাদ প্রামাণিকের স্ত্রী এবং সাগর (২২) ঝিনাইদহ জেলার উপজেলা সদরের শ্যামল বিশ্বাসের ছেলে। সম্পর্কে তারা বেয়াই-বেয়াইন।

এলাকাবাসী জানায়, বুধবার দুপুরে গৃহবধূ পিংকি তার বাবার বাড়ি নড়াইল থেকে শ্বশুরবাড়ি বাটাজোড় গ্রামে আসে।

অপরদিকে একই দিনে পিংকির বড় ভাইয়ের শ্বশুর বাড়ির আত্মীয় সাগর বিশ্বাস ঝিনাইদহ থেকে পিংকিদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন।

কিন্তু সন্ধ্যায় বাজার থেকে ফিরে পিংকির স্বামী রামপ্রসাদ ঘরের মধ্যে একই ওড়নায় তাদের ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

পরে পুলিশকে খবর দেয়া হলে রাত ১০টার দিকে লাশ দুটি উদ্ধার করে তারা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

মাগুরা সদর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, ঘরের দরজা বন্ধ দেখে পরিবারের লোকজনের কাছে বিষয়টি সন্দেহ হলে দরজা ভেঙে তারা পিংকি এবং সাগরকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়।

প্রাথমিক তদন্তে এটি আত্মহত্যার ঘটনা বলেই মনে হচ্ছে। তবে উভয়ের মধ্যকার অনৈতিক সম্পর্কের জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। ময়না তদন্তের পর বিষয়টি পরিষ্কার হওয়া যাবে বলে জানান তিনি।