ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব
jugantor
ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব

  কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

০৬ জানুয়ারি ২০২০, ২১:৫৮:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব
ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব

ভারতের কৈলাশহরে ঐতিহাসিক মুক্তিযুদ্ধ ১৯৭১ মননে স্মরণে ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব সম্পন্ন হয়েছে।

সোমবার বিকালে এ উৎসবে বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী উপজেলার সাংবাদিকদের সম্মাননা প্রদান করা হয়।

ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট সংলগ্ন কৈলাশহর মাঠে আশ্রয় সামাজিক সংস্থা এই উৎসবের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন ত্রিপুরা রাজ্যের সাবেক বিধায়ক বিরজিৎ সিনহা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন উনকোটি জেলা পরিষদের সদস্য বদরুজ্জামান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ত্রিপুরা রাজ্যের সাবেক বিধায়ক বিরজিৎ সিনহা বলেন, আমাদের ভাষা এক, কৃষ্টি কালচার এক। অতীতে এক ছিলাম। কিন্তু মধ্যখানে শুধু কাঁটাতারের বেড়া হয়েছে। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় দুদেশের যে ভ্রাতৃপ্রতিম সম্পর্ক ছিল। সময়ের ব্যবধানে এখন তা আর নেই। শুধু এই দুদেশেরই গোটা এশিয়া মহাদেশে শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে। সবাই যখন একটা আতঙ্কের মধ্যে সময় অতিবাহিত করছে, তখন এই মিলন মেলা দুই দেশের সম্পর্ক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব

 কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
০৬ জানুয়ারি ২০২০, ০৯:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব
ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব

ভারতের কৈলাশহরে ঐতিহাসিক মুক্তিযুদ্ধ ১৯৭১ মননে স্মরণে ভারত বাংলাদেশ মিলন সম্প্রীতি উৎসব সম্পন্ন হয়েছে।

সোমবার বিকালে এ উৎসবে বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী উপজেলার সাংবাদিকদের সম্মাননা প্রদান করা হয়।

ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট সংলগ্ন কৈলাশহর মাঠে আশ্রয় সামাজিক সংস্থা এই উৎসবের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন ত্রিপুরা রাজ্যের সাবেক বিধায়ক বিরজিৎ সিনহা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন উনকোটি জেলা পরিষদের সদস্য বদরুজ্জামান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ত্রিপুরা রাজ্যের সাবেক বিধায়ক বিরজিৎ সিনহা বলেন, আমাদের ভাষা এক, কৃষ্টি কালচার এক। অতীতে এক ছিলাম। কিন্তু মধ্যখানে শুধু কাঁটাতারের বেড়া হয়েছে। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় দুদেশের যে ভ্রাতৃপ্রতিম সম্পর্ক ছিল। সময়ের ব্যবধানে এখন তা আর নেই। শুধু এই দুদেশেরই গোটা এশিয়া মহাদেশে শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে। সবাই যখন একটা আতঙ্কের মধ্যে সময় অতিবাহিত করছে, তখন এই মিলন মেলা দুই দেশের সম্পর্ক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।