হাতুড়িপেটা করে কলেজছাত্রের হাত ভেঙ্গে দিল ছাত্রলীগ নেতা

প্রকাশ : ১৯ জানুয়ারি ২০২০, ২২:১৩ | অনলাইন সংস্করণ

  শরীয়তপুর প্রতিনিধি

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দাউদ ইব্রাহিম

শরীয়তপুর কলেজের জুনিয়র সিনিয়রদের মধ্যে কথা কাটাকাটি নিয়ে শরীয়তপুর সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রকে হাতুড়িপেটা করে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে এক ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান ওরফে শুভ ঢালি। 

রোববার বিকালে শরীয়তপুর শহরের দুবাই প্লাজা মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত কলেজছাত্রকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত দাউদ ইব্রাহিম জানায়, রোববার দুপুরে শরীয়তপুর সরকারী কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র দাউদ ইব্রাহিম ও দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র দ্বাদশ শ্রেণি ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান ওরফে শুভ ঢালির সঙ্গে জুনিয়র সিনিয়র নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনাটি কলেজ ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি সমান করে দেয়।

এ ঘটনার জের ধরে রোববার বিকালে শরীয়তপুর শহরের দুবাই প্লাজা মার্কেটের সামনে শরীয়তপুর সরকারি কলেজ দ্বাদশ শ্রেণি ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান ও তার সহপাঠী ৪/৫ জন মিলে দাউদ ইব্রাহিমকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে তার বাম হাত ভেঙ্গে দিয়েছে বলে তার বাবা মো. শহীদুল ইসলাম সিকদার অভিযোগ করেন।

স্থানীয় লোকজন দাউদ ইব্রাহিমকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে দাউদ ইব্রাহিম শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মফিজুর রহমান স্বপন বলেন, দাউদ ইব্রাহিমের বাম হাতের কনুই ভেঙ্গে গেছে। হাতুড়ি দিয়ে পিটানোর কারণে আঘাত মারাত্মক হয়েছে।২/১ দিনে মধ্যে তাকে অস্ত্রোপচার করতে হবে।

শরীয়তপুর সরকারি কলেজ দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসানের মোবাইলে বার বার ফোন করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

দাউদ ইব্রাহিমের বাবা শহীদুল ইসলাম বলেন, আমার ছেলে কোনো রাজনীতি বা মারামারির সঙ্গে জড়িত নয়। তার পরেও আমার ছেলেকে নির্মম ভাবে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহসীন বলেন, ঘটনাটি এই মাত্র জানতে পারলাম। বিষয়টি জেনে শুনে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

পালং মডেল থানার ওসি মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, শরীয়তপুর সরকারি কলেজে সিনিয়র জুনিয়র নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়।এর জের ধরে বিকালে দুবাই প্লাজার সামনে তাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে তার হাত ভেঙ্গে দিয়েছে।