পাবনায় স্কুলশিক্ষককে খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে হত্যা!

  পাবনা ও ঈশ্বরদী প্রতিনিধি ২১ জানুয়ারি ২০২০, ২০:১৮:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

নিহত স্কুলশিক্ষক। ছবি: সংগৃহীত

পাবনার ঈশ্বরদীতে সরওয়ার আলম (৩৫) নামে এক স্কুলশিক্ষককে খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার দুপুরে পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই শিক্ষকের মৃত্যু হয়।

নিহত সরওয়ার আলম ঈশ্বরদী উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের দুবলারচর গ্রামের মো. রোস্তম আলী প্রামাণিকের ছেলে। তিনি ঈশ্বরদী সরকারি রেলওয়ে নাজিমুদ্দিন উচ্চবিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষক ছিলেন।

নিহত শিক্ষকের ছোট ভাই সাজেদুল ইসলাম জানান, শনিবার রাতে দাওয়াত খেয়ে অসুস্থ বোধ করছিলেন শিক্ষক সরওয়ার আলম। রোববার বেশি অসুস্থ বোধ করায় সন্ধ্যায় তাকে ঈশ্বরদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় সোমবার সকালে ঈশ্বরদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। এরপর পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়।

তিনি বলেন, আমার ভাইকে খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাওয়ানো হয়েছে। তদন্ত করলে এর রহস্য উদঘাটন হবে। এ ব্যাপারে নিহত সরওয়ারের ছোট ভাই সাজেদুল ইসলাম বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মঙ্গলবার পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। ময়নাতদন্ত শেষে পুলিশ পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করেন।

ঈশ্বরদী থানার ওসি বাহাউদ্দিন ফারুকী বলেন, শিক্ষক সরওয়ার আলম কীভাবে মারা গেছেন তা এই মুহূর্তে বলা মুশকিল। তবে তার স্বজনরা অভিযোগ করায় মঙ্গলবার লাশের ময়নাতদন্ত করা হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর তার মৃত্যুর কারণ বোঝা যাবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত