সাতক্ষীরায় বন্ধুকে হত্যার পর বাড়ির উঠানে লাশ পুঁতে রাখে জাহিদ
jugantor
সাতক্ষীরায় বন্ধুকে হত্যার পর বাড়ির উঠানে লাশ পুঁতে রাখে জাহিদ

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  

২৩ জানুয়ারি ২০২০, ২১:৪১:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রাচীরঘেরা বাড়ির মধ্যে উঠান থেকে লাশ উদ্ধার

হত্যার পর বাড়ির মধ্যে উঠানে মাটির নিচে পুঁতে রাখা কলেজছাত্র রাসেল আহমেদ জীমের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। জীম ২ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল লাশটি সাতক্ষীরা শহরের অদূরে চালতেতলা গ্রামের জাহিদ হোসেনের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মোহিতুল ইসলাম জানান, রাসেল আহমেদ জীম সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। জাহিদ হোসেন তার বন্ধু। দু'জনের বাড়ি খুলনায় হলেও তারা সাতক্ষীরায় ভিন্ন বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। মঙ্গলবার জাহিদ হোসেন তার বন্ধু রাসেল আহমেদকে তার বাড়িতে ডেকে আনেন। ওই দিন কোনো এক সময় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ পুঁতে রাখা হয় প্রাচীরঘেরা বাড়ির মধ্যে উঠানে।

তিনি জানান, ছেলের খোঁজ পেতে রাসেল আহমেদের বাবা হিমু সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলার সূত্র ধরে পুলিশ প্রথমে জাহিদকে আটক করে। পরে জাহিদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তার বাড়ির উঠানের মাটির নিচ থেকে উত্তোলন করা হয় রাসেলের লাশ।

হত্যার কোনো মোটিভ এখনও জানা যায়নি উল্লেখ করে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ধারণা করা হচ্ছে তাদের মধ্যে কোনো অবৈধ কারবার ছিল। এ নিয়ে বিরোধের জেরে তাকে খুন করা হয়ে থাকতে পারে।

জাহিদ হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

সাতক্ষীরায় বন্ধুকে হত্যার পর বাড়ির উঠানে লাশ পুঁতে রাখে জাহিদ

 সাতক্ষীরা প্রতিনিধি 
২৩ জানুয়ারি ২০২০, ০৯:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রাচীরঘেরা বাড়ির মধ্যে উঠান থেকে লাশ উদ্ধার
প্রাচীরঘেরা বাড়ির মধ্যে উঠান থেকে লাশ উদ্ধার

হত্যার পর বাড়ির মধ্যে উঠানে মাটির নিচে পুঁতে রাখা কলেজছাত্র রাসেল আহমেদ জীমের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। জীম ২ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল লাশটি সাতক্ষীরা শহরের অদূরে চালতেতলা গ্রামের জাহিদ হোসেনের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মোহিতুল ইসলাম জানান, রাসেল আহমেদ জীম সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। জাহিদ হোসেন তার বন্ধু। দু'জনের বাড়ি খুলনায় হলেও তারা সাতক্ষীরায় ভিন্ন বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। মঙ্গলবার জাহিদ হোসেন তার বন্ধু রাসেল আহমেদকে তার বাড়িতে ডেকে আনেন। ওই দিন কোনো এক সময় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ পুঁতে রাখা হয় প্রাচীরঘেরা বাড়ির মধ্যে উঠানে।

তিনি জানান, ছেলের খোঁজ পেতে রাসেল আহমেদের বাবা হিমু সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলার সূত্র ধরে পুলিশ প্রথমে জাহিদকে আটক করে। পরে জাহিদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তার বাড়ির উঠানের মাটির নিচ থেকে উত্তোলন করা হয় রাসেলের লাশ।

হত্যার কোনো মোটিভ এখনও জানা যায়নি উল্লেখ করে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ধারণা করা হচ্ছে তাদের মধ্যে কোনো অবৈধ কারবার ছিল। এ নিয়ে বিরোধের জেরে তাকে খুন করা হয়ে থাকতে পারে।

জাহিদ হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন