ভাঙ্গা উপজেলাকে ইউরোপের মতো করে গড়ে তোলা হবে: রেলমন্ত্রী
jugantor
ভাঙ্গা উপজেলাকে ইউরোপের মতো করে গড়ে তোলা হবে: রেলমন্ত্রী

  ভাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি  

২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:৪৪:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

ভাঙ্গায় রেললাইনের কাজ পরিদর্শনে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলাকে ইউরোপের মতো করে গড়ে তোলা হবে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।তিনি বলেন, পদ্মা সেতু হয়ে ভাঙ্গার সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ খুব শীঘ্রই চালু করা হবে। ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলাকে ইউরোপের মতো আধুনিকায়ন করে গড়ে তোলা হবে।

শুক্রবার সকালে ভাঙ্গা রেল স্টেশনসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিদর্শনের সময় রেলমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
এ সময় তিনি জানান, রোববার বহুদিনের আকাঙ্খিত রেল চলাচলের জন্য রাজবাড়ী এক্সপ্রেসটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, আমি পদ্মা নদী পার হয়ে দেখেছি, আপনাদের সুবিধার জন্য প্রধানমন্ত্রী ৬ লাইনের যে উন্নত রাস্তাটি করেছে সে রাস্তাটি ঢাকায়ও নাই।

রেলমন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন বাস্তাবায়নের লক্ষে তার কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে ইউরোপের মতো এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। পরে মন্ত্রী ভাঙ্গা রেলস্টেশন থেকে মটরট্রলিতে চড়ে ফরিদপুরে যান। সেখান থেকে সড়ক পথে পাকশি রেলস্টেশন পরিদর্শন করবেন।

এ সময় মন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রেল মন্ত্রণালয়ের জিএম মিহিরকান্তি গুহ, চিফ ইঞ্জিনিয়ার আলফাত্তাহ মাসুদুর রহমান, ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল কুমার সরকার, জেলা পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান, এডিসি আসলাম মোল্লা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজি রবিউল ইসলাম, ভাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম হাবিবুর রহমান, ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুকতাদিরুল আহমেদ, ভাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. শফিকুর রহমান ও ভাঙ্গা স্টেশন ম্যানেজান তর্ম্ময় প্রমুখ।

পরিদর্শন শেষে মন্ত্রী আরও বলেন, ভাঙ্গা থেকে কুয়াকাটা পায়রাবন্দর পর্যন্ত বর্ধিত আরেকটি রেললাইন সংযুক্ত করা হবে। আমরা প্রথমেই ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৭২ কিলোমিটার রাস্তা আগামী ২৪ সালের মধ্যে সম্পন্ন করব। তবে পদ্মা সেতুর সঙ্গে যেন ভাঙ্গা থেকে মাওয়া হয়ে ঢাকা পর্যন্ত রেল চলাচল করতে পারে সে বিষয়ে এখানকার কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বর্তমানে রেলগাড়ী নাম দেওয়া হয়েছে রাজবাড়ী এক্সপ্রেসের। জনগণের প্রাণের দাবি এটি ভাঙ্গা এক্সপ্রেস নামের নামকরণ করা হোক-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকভাবে নামকরণ করা হয়েছে এটি। তবে আপনারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি করবেন, সেটা প্রধানমন্ত্রী চাইলে পরির্বতন করতে পারেন।

এর আগে রেলমন্ত্রী ভাঙ্গা রেল স্টেশনে পৌঁছালে উপজেলার চেয়ারম্যান মো হাবিবুর রহমান হাবিব ও এমপি নিক্সন চৌধুরী দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। পুলিশের একটি চৌকস দল মন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করে।

ভাঙ্গা উপজেলাকে ইউরোপের মতো করে গড়ে তোলা হবে: রেলমন্ত্রী

 ভাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি 
২৪ জানুয়ারি ২০২০, ০৬:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভাঙ্গায় রেললাইনের কাজ পরিদর্শনে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন
ভাঙ্গায় রেললাইনের কাজ পরিদর্শনে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। ছবি: যুগান্তর

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলাকে ইউরোপের মতো করে গড়ে তোলা হবে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। তিনি বলেন, পদ্মা সেতু হয়ে ভাঙ্গার সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ খুব শীঘ্রই চালু করা হবে। ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলাকে ইউরোপের মতো আধুনিকায়ন করে গড়ে তোলা হবে। 

শুক্রবার সকালে ভাঙ্গা রেল স্টেশনসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিদর্শনের সময় রেলমন্ত্রী এসব কথা বলেন। 
এ সময় তিনি জানান,  রোববার বহুদিনের আকাঙ্খিত রেল চলাচলের জন্য রাজবাড়ী এক্সপ্রেসটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  

এ সময় মন্ত্রী বলেন, আমি পদ্মা নদী পার হয়ে দেখেছি, আপনাদের সুবিধার জন্য প্রধানমন্ত্রী ৬ লাইনের যে উন্নত রাস্তাটি করেছে সে রাস্তাটি ঢাকায়ও নাই।  

রেলমন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন বাস্তাবায়নের লক্ষে তার কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে ইউরোপের মতো এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। পরে মন্ত্রী ভাঙ্গা রেলস্টেশন থেকে মটরট্রলিতে চড়ে ফরিদপুরে যান। সেখান থেকে সড়ক পথে পাকশি রেলস্টেশন পরিদর্শন করবেন।  

এ সময় মন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রেল মন্ত্রণালয়ের জিএম মিহিরকান্তি গুহ, চিফ ইঞ্জিনিয়ার আলফাত্তাহ মাসুদুর রহমান, ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল কুমার সরকার, জেলা পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান, এডিসি আসলাম মোল্লা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজি রবিউল ইসলাম, ভাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম হাবিবুর রহমান, ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুকতাদিরুল আহমেদ, ভাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. শফিকুর রহমান ও ভাঙ্গা স্টেশন ম্যানেজান তর্ম্ময় প্রমুখ।  

পরিদর্শন শেষে মন্ত্রী আরও বলেন, ভাঙ্গা থেকে কুয়াকাটা পায়রাবন্দর পর্যন্ত বর্ধিত আরেকটি রেললাইন সংযুক্ত করা হবে। আমরা প্রথমেই ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৭২ কিলোমিটার রাস্তা আগামী ২৪ সালের মধ্যে সম্পন্ন করব। তবে পদ্মা সেতুর সঙ্গে যেন ভাঙ্গা থেকে মাওয়া হয়ে ঢাকা পর্যন্ত রেল চলাচল করতে পারে সে বিষয়ে এখানকার কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। 

বর্তমানে রেলগাড়ী নাম দেওয়া হয়েছে রাজবাড়ী এক্সপ্রেসের। জনগণের প্রাণের দাবি এটি ভাঙ্গা এক্সপ্রেস নামের নামকরণ করা হোক-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকভাবে নামকরণ করা হয়েছে এটি। তবে আপনারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি করবেন, সেটা প্রধানমন্ত্রী চাইলে পরির্বতন করতে পারেন। 

এর আগে রেলমন্ত্রী ভাঙ্গা রেল স্টেশনে পৌঁছালে উপজেলার চেয়ারম্যান মো হাবিবুর রহমান হাবিব ও এমপি নিক্সন চৌধুরী দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। পুলিশের একটি চৌকস দল মন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন