লোহাগড়ায় সেনাবাহিনীতে চাকরির নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ১
jugantor
লোহাগড়ায় সেনাবাহিনীতে চাকরির নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ১

  লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি  

২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:৪৭:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতারক মিন্টু মোল্যা
গ্রেফতার প্রতারক মিন্টু মোল্যা। ছবি: যুগান্তর
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে চাকরি দেয়ার নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  
 
শুক্রবার সকালে লোহাগড়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। 
 
গ্রেফতার প্রতারকের নাম মিন্টু মোল্যা (৩৫)। সে লোহাগড়ার লাহুড়িয়া ইউপির চরবালিদিয়া গ্রামের জুলহাস মোল্যার ছেলে। পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, লোহাগড়া উপজেলার চর শামুকখোলা গ্রামের শাহাদাৎ শেখের ছেলে সাকিবুলকে সেনাবাহিনীতে চাকরি দেয়ার নামে গত বছরের ১২ ডিসেম্বর ৭ লাখ টাকার চুক্তিতে অগ্রিম ৫০ হাজার টাকা নেন। ছেলের চাকরি হলে বাকি ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা দিতে হবে। এ ব্যপারে নিশ্চয়তা হিসেবে প্রতারক মিন্টু শাহাদাত শেখের স্বাক্ষরিত ১০০ টাকা মূল্যের ৩টি স্টাম্প ও ব্যাংকের একটি ফাঁকা চেক নিয়ে রাখেন।
 
এর পর গত বছর ২৯ ডিসেম্বর যশোর ক্যান্টনমেন্ট মাঠে সেনাবাহিনীতে সাকিবুল ইসলামের চাকরি হয়। পরে তিনি জানতে পারেন তার ছেলের সেনাবাহিনীতে যোগ্যতা ও মেধায় চাকরি হয়েছে। মিন্টুসহ তার সহযোগীরা তার সঙ্গে প্রতারণা করেছে। 
চাকরি হওয়ার পর গত ৩১ ডিসেম্বর রাতে মিন্টুসহ কয়েকজন প্রতারক শাহাদৎ শেখের বাড়িতে গিয়ে তার কাছে বাকি টাকা দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় তারা শাহাদৎ শেখের পরিবারকে হুমকি দেন।
 
এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার সাকিবুলের মা সেলিনা বাদী হয়ে প্রতারক মিন্টু মোল্যাসহ চারজনের নামে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেন।
 
মামলা দায়েরের পর লোহাগড়া থানার পুলিশ গত বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালিয়ে বাড়ি থেকে প্রতারক মিন্টুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। আটক প্রতারককে শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। লোহাগড়া থানার ওসি মো. আলমগীর হোসেন প্রতারক মিন্টুর গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।   

লোহাগড়ায় সেনাবাহিনীতে চাকরির নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ১

 লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি 
২৪ জানুয়ারি ২০২০, ০৭:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রতারক মিন্টু মোল্যা
গ্রেফতার প্রতারক মিন্টু মোল্যা। ছবি: যুগান্তর
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে চাকরি দেয়ার নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে একজনকে গ্রেফতারকরা হয়েছে।
শুক্রবার সকালে লোহাগড়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতারকরে।পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।
গ্রেফতারপ্রতারকের নাম মিন্টু মোল্যা (৩৫)। সে লোহাগড়ার লাহুড়িয়া ইউপির চরবালিদিয়া গ্রামের জুলহাস মোল্যার ছেলে। পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, লোহাগড়া উপজেলার চর শামুকখোলা গ্রামের শাহাদাৎ শেখের ছেলে সাকিবুলকে সেনাবাহিনীতে চাকরি দেয়ার নামে গত বছরের ১২ ডিসেম্বর ৭ লাখ টাকার চুক্তিতে অগ্রিম ৫০ হাজার টাকা নেন। ছেলের চাকরি হলে বাকি ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা দিতে হবে। এ ব্যপারে নিশ্চয়তা হিসেবে প্রতারক মিন্টু শাহাদাত শেখের স্বাক্ষরিত ১০০ টাকা মূল্যের ৩টি স্টাম্প ও ব্যাংকের একটি ফাঁকা চেক নিয়ে রাখেন।
এর পর গত বছর ২৯ ডিসেম্বর যশোর ক্যান্টনমেন্ট মাঠে সেনাবাহিনীতে সাকিবুল ইসলামের চাকরি হয়। পরে তিনি জানতে পারেন তার ছেলের সেনাবাহিনীতে যোগ্যতা ও মেধায় চাকরি হয়েছে। মিন্টুসহ তার সহযোগীরা তার সঙ্গে প্রতারণা করেছে।
চাকরি হওয়ার পর গত ৩১ ডিসেম্বর রাতে মিন্টুসহ কয়েকজন প্রতারক শাহাদৎ শেখের বাড়িতে গিয়ে তার কাছে বাকি টাকা দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় তারা শাহাদৎ শেখের পরিবারকে হুমকি দেন।
এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার সাকিবুলের মা সেলিনা বাদী হয়ে প্রতারক মিন্টু মোল্যাসহ চারজনের নামে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেন।
মামলা দায়েরের পর লোহাগড়া থানার পুলিশ গত বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালিয়ে বাড়ি থেকে প্রতারক মিন্টুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। আটক প্রতারককে শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। লোহাগড়া থানার ওসি মো. আলমগীর হোসেন প্রতারক মিন্টুর গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন