বিদেশ ফেরত নারীর আত্মহত্যার চেষ্টা, দড়ি ছিঁড়ে যাওয়ায় রক্ষা

  মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ২৭ জানুয়ারি ২০২০, ২৩:২০ | অনলাইন সংস্করণ

আত্মহত্যাচেষ্টা

কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই রহিমা বেগম মিতা নামের এক নারীকে আয়ারল্যান্ড থেকে ধরে দেশে পাঠিয়ে দেয় সে দেশের ইমিগ্রেশন বিভাগ।

দেশে পৌঁছে তার ওপর অবিচার হয়েছে এমন বিষয়টি সইতে না পেরে ২৩ জানুয়ারি রাতে আÍহত্যার পথ বেছে নেন রহিমা। তবে ভাগ্যক্রমে রশি ছিঁড়ে বেঁচে গেলেও গুরুতর আহত হন রহিমা।

প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

জানা গেছে, রহিমা বেগমের পৈতৃক বাড়ি মৌলভীবাজার সদর উপজেলার কামালপুর ইউনিয়নের রায়পুর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মৃত আহসান হাবিবের মেয়ে। ২০১০ সালের নভেম্বর মাসে স্টুডেন্ট ভিসায় লন্ডন পাড়ি দেন রহিমা। বিদেশে পাড়ি দেয়ার সময় এক ছেলে ও মেয়ে দেশে রেখে যান।

লন্ডনে তিনি প্রায় ৫ বছর অবস্থান করেন। পরে লন্ডন থেকে পাড়ি দেন আয়ারল্যান্ডে। চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি রহিমা বেগম মিতাকে আয়ারল্যান্ড স্থানীয় সময় দুপুর আড়াইটার দিকে তার মালিকানা মিতাস বিউটি শেলুন, ইউনিট ৫, কিলারনি শপিং অরকেড (স্মল টেসকো) ৯৫/৯৬ নিউ স্ট্রিট, কিলারি, কো-কেরি, আয়ারল্যান্ড থেকে ধরে নিয়ে আসে ইমিগ্রেশনের লোক। ২ দিন আটকে রেখে কাতার এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকা শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

এক দিন ঢাকায় অবস্থানের পর তার ছেলে ইমন আহমদ রহিমাকে নিয়ে আসে মৌলভীবাজার।

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৫৬ ২৬
বিশ্ব ১০,১৫,৮৫০ ২,১২,৯৯১ ৫৩,২১৬
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×