অফিসকক্ষে স্কুলশিক্ষক খুন, লাশ গুমের অভিযোগ
jugantor
অফিসকক্ষে স্কুলশিক্ষক খুন, লাশ গুমের অভিযোগ

  মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:৩০:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আরএনজি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পরিচালক মো. সুলতানুজ্জামান হেলাল

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে স্কুলের অফিসকক্ষে এক শিক্ষককে হত্যার পর লাশ গুম করার অভিযোগ উঠেছে।

নিখোঁজ ওই শিক্ষকের নাম সুলতানুজ্জামান হেলাল (৫০)। তিনি উপজেলার বানিয়াজান ইউনিয়নের বাঐজান গ্রামের মৃত হাসান আলী মন্ডলের ছেলে।

তিনি ধনবাড়ী পৌরশহরের নলহরা (নল্যা) বাজারের আরএনজি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পরিচালক।

পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ধনবাড়ী থানা পুলিশ হেলালকে উদ্ধারে নেমেছে। শনিবার দুপুর ১ টায় এ প্রতিবেদন লেখার সময় হেলালের কোনো সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ।

হেলালের বড় ভাই আবু বকর সিদ্দিক জানান, ‘বৃহস্পতিবার রাতে সুলতানুজ্জামান হেলাল ধনবাড়ী থেকে ফিরে নল্যা বাজারের জনৈক বিষ্ণুর সেলুনের সামনে মোটরবাইক রেখে পাশের একটি এলাকায় যান। কিন্তু এরপর থেকে আর তার খোঁজ মিলছে না।’

তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ সময় ধরে হেলাল তার মোটরসাইকেল নিতে না আসায় বিষয়টি বাজারের লোকজনরা আমাদের জানায়। এ খবর শোনামাত্রই আমরা তাকে ফোন করলে তা শুধু বাজতেই থাকে।দুশ্চিন্তায় আমরা দ্রুত তার স্কুলে যাই। সেখানে অফিসকক্ষের মেঝেতে রক্তের দাগ দেখি ও মোবাইল ফোনটি পড়ে থাকতে পাওয়া যায়।’

এ বিষয়ে ধনবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। হেলালকে হত্যা করে গুম করা হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে হেলালের শ্বশুর মজিবর রহমান থানায় জিডি করেছেন । ’

ধনবাড়ী থানার এসআই মাজাহার বলেন, ‘হেলালের অফিসকক্ষ থেকে তার মোবাইল ফোন ও কিছু আলামত সংগ্রহ করেছি। এসব আলামতের সূত্র ধরে শিক্ষক হেলালের খোঁজ চলছে।’

অফিসকক্ষে স্কুলশিক্ষক খুন, লাশ গুমের অভিযোগ

 মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০১:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আরএনজি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পরিচালক মো. সুলতানুজ্জামান হেলাল
আরএনজি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পরিচালক মো. সুলতানুজ্জামান হেলাল। ছবি: যুগান্তর

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে স্কুলের অফিসকক্ষে এক শিক্ষককে হত্যার পর লাশ গুম করার অভিযোগ উঠেছে।

নিখোঁজ ওই শিক্ষকের নাম সুলতানুজ্জামান হেলাল (৫০)। তিনি উপজেলার বানিয়াজান ইউনিয়নের বাঐজান গ্রামের মৃত হাসান আলী মন্ডলের ছেলে।

তিনি ধনবাড়ী পৌরশহরের নলহরা (নল্যা) বাজারের আরএনজি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পরিচালক।

পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ধনবাড়ী থানা পুলিশ হেলালকে উদ্ধারে নেমেছে। শনিবার দুপুর ১ টায় এ প্রতিবেদন লেখার সময় হেলালের কোনো সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ।

হেলালের বড় ভাই আবু বকর সিদ্দিক জানান, ‘বৃহস্পতিবার রাতে সুলতানুজ্জামান হেলাল ধনবাড়ী থেকে ফিরে নল্যা বাজারের জনৈক বিষ্ণুর সেলুনের সামনে মোটরবাইক রেখে পাশের একটি এলাকায় যান। কিন্তু এরপর থেকে আর তার খোঁজ মিলছে না।’  

তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ সময় ধরে হেলাল তার মোটরসাইকেল নিতে না আসায় বিষয়টি বাজারের লোকজনরা আমাদের জানায়। এ খবর শোনামাত্রই আমরা তাকে ফোন করলে তা শুধু বাজতেই থাকে।দুশ্চিন্তায় আমরা দ্রুত তার স্কুলে যাই। সেখানে অফিসকক্ষের মেঝেতে রক্তের দাগ দেখি ও মোবাইল ফোনটি পড়ে থাকতে পাওয়া যায়।’

এ বিষয়ে ধনবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। হেলালকে হত্যা করে গুম করা হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।  এ বিষয়ে হেলালের শ্বশুর মজিবর রহমান থানায় জিডি করেছেন । ’

ধনবাড়ী থানার এসআই মাজাহার বলেন, ‘হেলালের অফিসকক্ষ থেকে তার মোবাইল ফোন ও কিছু আলামত সংগ্রহ করেছি।  এসব আলামতের সূত্র ধরে শিক্ষক হেলালের খোঁজ চলছে।’

 

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন