যুগান্তর স্বজন সমাবেশের নারীবিষয়ক সম্পাদক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত
jugantor
যুগান্তর স্বজন সমাবেশের নারীবিষয়ক সম্পাদক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

  কটিয়াদী ( কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:২৬:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

নিহত শামীমা সুলতানা ঝর্ণা।

যুগান্তর স্বজন সমাবেশের কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী শাখার নারীবিষয়ক সম্পাদক শামীমা সুলতানা ঝর্ণার (৪৭) সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে রাজধানী ঢাকার হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শামীমা সুলতানা কটিয়াদী উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নের ঘিলাকান্দী গ্রামের মো. বদরুল আলমের স্ত্রী।

তিনি বনগ্রাম নারী উন্নয়ন সংস্থার সভানেত্রী ও নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের একজন সক্রিয় কর্মী।

মো. বদরুল আলম শনিবার সকালে যুগান্তরকে জানান, ২৯ জানুয়ারি বুধবার সকালে শামীমা বাড়ি কিশোরগঞ্জ - ভৈরব মহাসড়কের পাশ দিয়ে হাঁটছিলেন।

এসময় তার পেছনে থাকা একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে একটি পিকআপ সজোরে ধাক্কা দেয়। পিকআপের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশাটি শামীমাকে চাপা দিলে তিনি গুরুতর আহত হন।

তাকে উদ্ধার করে দ্রুত বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকদের পরামর্শে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নিউরোসাইন্স হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পরে স্কয়ার হাসপাতাল এবং সবশেষ হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। শুক্রবার সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

শনিবার ভোরে শামীমার লাশ বাড়িতে নিয়ে আসলে তাকে শেষ বারের মত দেখতে ভিড় করেন লোকজন।

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি মুজিববর্ষ উপলক্ষে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসককে প্রধান অতিথি করে ঘিলাকান্দী গ্রামে নারী সমাবেশ করার কথা ছিল শামীমার।

যুগান্তর স্বজন সমাবেশের নারীবিষয়ক সম্পাদক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

 কটিয়াদী ( কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৩:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নিহত শামীমা সুলতানা ঝর্ণা।
নিহত শামীমা সুলতানা ঝর্ণা। ছবি: যুগান্তর

যুগান্তর স্বজন সমাবেশের কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী শাখার নারীবিষয়ক সম্পাদক শামীমা সুলতানা ঝর্ণার (৪৭) সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে রাজধানী ঢাকার হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শামীমা সুলতানা কটিয়াদী উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নের ঘিলাকান্দী গ্রামের মো. বদরুল আলমের স্ত্রী।

তিনি বনগ্রাম নারী উন্নয়ন সংস্থার সভানেত্রী ও নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের একজন সক্রিয় কর্মী।

মো. বদরুল আলম শনিবার সকালে যুগান্তরকে জানান, ২৯ জানুয়ারি বুধবার সকালে শামীমা বাড়ি কিশোরগঞ্জ - ভৈরব মহাসড়কের পাশ দিয়ে হাঁটছিলেন।

এসময় তার পেছনে থাকা একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে একটি পিকআপ সজোরে ধাক্কা দেয়।  পিকআপের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশাটি শামীমাকে চাপা দিলে তিনি গুরুতর আহত হন।

তাকে উদ্ধার করে দ্রুত বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকদের পরামর্শে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নিউরোসাইন্স হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পরে স্কয়ার হাসপাতাল এবং সবশেষ হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। শুক্রবার সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

শনিবার ভোরে শামীমার লাশ বাড়িতে নিয়ে আসলে তাকে শেষ বারের মত দেখতে ভিড় করেন লোকজন।

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি মুজিববর্ষ উপলক্ষে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসককে প্রধান অতিথি করে ঘিলাকান্দী গ্রামে নারী সমাবেশ করার কথা ছিল শামীমার।

 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন