মৌলভীবাজারে পাওয়া গেল মালিকানাহীন ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ!
jugantor
মৌলভীবাজারে পাওয়া গেল মালিকানাহীন ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ!

  শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭:০১:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পেঁয়াজভর্তি ট্রাক
পেঁয়াজভর্তি ট্রাক। ছবি: যুগান্তর

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে মালিকবিহীন অবস্থায় পাওয়া গেল ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ। পরে শনিবার শ্রীমঙ্গল থানা চত্বরে খোলা নিলামে ৩ লাখ ৮৭ হাজার টাকায় এ সব পেঁয়াজ বিক্রি করা হয়। 

শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শহরের সেন্ট্রাল রোড থেকে একটি ট্রাকে পরিত্যক্ত ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় পেঁয়াজের কোনো বৈধ কাগজপত্র ও মালিক দাবিদার না থাকায় পুলিশ পরিত্যক্ত হিসেবে পেঁয়াজভর্তি ট্রাকটি থানায় নিয়ে আসে। 

শনিবার দুপুরে সমশেরনগরস্থ চাতলাপুর শুল্ক স্টেশনের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা সজল কান্তি দাসের উপস্থিতিতে এ নিলাম কার্যক্রমে শ্রীমঙ্গলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদুর রহমান মামুন, ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা, এসআই আল আমিনসহ অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।

উন্মুক্ত নিলামে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ব্যবসায়ী হাজী কামাল হোসেন ৩ লাখ ৮৭ হাজার টাকায় পেঁয়াজ ক্রয় করেন এবং এ টাকা সরকারি কোষাগারে রাজস্ব হিসাবে জমা হয়।
পুলিশ ধারণা করছে, স্থানীয় কোনো ব্যবসায়ী অতি মুনাফার লোভে ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ ভারত থেকে চোরাইপথে শ্রীমঙ্গলে নিয়ে আসতে পারে।

মৌলভীবাজারে পাওয়া গেল মালিকানাহীন ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ!

 শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৫:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পেঁয়াজভর্তি ট্রাক
পেঁয়াজভর্তি ট্রাক। ছবি: যুগান্তর

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে মালিকবিহীন অবস্থায় পাওয়া গেল ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ। পরে শনিবার শ্রীমঙ্গল থানা চত্বরে খোলা নিলামে ৩ লাখ ৮৭ হাজার টাকায় এ সব পেঁয়াজ বিক্রি করা হয়।

শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শহরের সেন্ট্রাল রোড থেকে একটি ট্রাকে পরিত্যক্ত ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় পেঁয়াজের কোনো বৈধ কাগজপত্র ও মালিক দাবিদার না থাকায় পুলিশ পরিত্যক্ত হিসেবে পেঁয়াজভর্তি ট্রাকটি থানায় নিয়ে আসে।

শনিবার দুপুরে সমশেরনগরস্থ চাতলাপুর শুল্ক স্টেশনের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা সজল কান্তি দাসের উপস্থিতিতে এ নিলাম কার্যক্রমে শ্রীমঙ্গলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদুর রহমান মামুন, ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা, এসআই আল আমিনসহ অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।

উন্মুক্ত নিলামে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ব্যবসায়ী হাজী কামাল হোসেন ৩ লাখ ৮৭ হাজার টাকায় পেঁয়াজ ক্রয় করেন এবং এ টাকা সরকারি কোষাগারে রাজস্ব হিসাবে জমা হয়।
পুলিশ ধারণা করছে, স্থানীয় কোনো ব্যবসায়ী অতি মুনাফার লোভে ৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ ভারত থেকে চোরাইপথে শ্রীমঙ্গলে নিয়ে আসতে পারে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি