মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবি মামলার পলাতক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
jugantor
মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবি মামলার পলাতক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

  টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি  

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:৫৮:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবি মামলার পলাতক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’  নিহত
ফাইল ছবি

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক যুবক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম আবদুস সালাম (৩০)।

রোববার ভোরে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়া এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, নিহত আবদুস সালাম বঙ্গোপসাগরে মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবিতে হতাহতের ঘটনায় করা মামলার পলাতক আসামি।  তার বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে তিনটি মামলা রয়েছে। নিহত আবদুস সালাম বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়া এলাকার মৃত হাকিম আলীর ছেলে।  

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানিয়েছেন, সম্প্রতি বঙ্গোপসাগরে মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবিতে হতাহতের ঘটনায় করা মামলার পলাতক আসামি আবদুস সালামসহ কয়েকজন নোয়াখালীপাড়া পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান করছে এমন গোপন খবর আসে।

এর ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযানে যায়। এ সময় মানবপাচারকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করলে পুলিশের এএসআই হাবিবউল্লাহ, কনস্টেবল সানি বডুয়া ও দেলোয়ার আহত হন।

পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে জানমাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে মানবপাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে আবদুস সালামকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে নেয়া হয়।

পরে সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে একটি এলজি, ছয় রাউন্ড কার্তুজ, ৯ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়।

নিহতের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে তিনটি মামলা ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবি মামলার পলাতক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

 টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি 
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবি মামলার পলাতক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’  নিহত
ফাইল ছবি

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক যুবক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম আবদুস সালাম (৩০)।

রোববার ভোরে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়া এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, নিহত আবদুস সালাম বঙ্গোপসাগরে মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবিতে হতাহতের ঘটনায় করা মামলার পলাতক আসামি। তার বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে তিনটি মামলা রয়েছে। নিহত আবদুস সালাম বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়া এলাকার মৃত হাকিম আলীর ছেলে।

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানিয়েছেন, সম্প্রতি বঙ্গোপসাগরে মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবিতে হতাহতের ঘটনায় করা মামলার পলাতক আসামি আবদুস সালামসহ কয়েকজন নোয়াখালীপাড়া পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান করছে এমন গোপন খবর আসে।

এর ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযানে যায়। এ সময় মানবপাচারকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করলে পুলিশের এএসআই হাবিবউল্লাহ, কনস্টেবল সানি বডুয়া ও দেলোয়ার আহত হন।

পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে জানমাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে মানবপাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে আবদুস সালামকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে নেয়া হয়।

পরে সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে একটি এলজি, ছয় রাউন্ড কার্তুজ, ৯ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়।

নিহতের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে তিনটি মামলা ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত