প্রেমের জেরে সাভারে শিষ্যের হাতে হিজড়া গুরু খুন!
jugantor
প্রেমের জেরে সাভারে শিষ্যের হাতে হিজড়া গুরু খুন!

  সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি  

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২১:৪০:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রেমের সম্পর্কের জেরে সাভারে নিজেদের অন্তর্কোন্দলে লতিফ মোল্লা ওরফে আপন (৩০) নামে এক হিজড়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার শিষ্যরা।

রোববার রাতে পৌর এলাকার রেডিওকলোনি মহল্লার হাফিজুর রহমানের টিনশেড বাড়ির একটি কক্ষে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এক হিজড়াসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

খবর পেয়ে সোমবার সকালে সাভার মডেল থানা পুলিশ নিহত আপন হিজড়ার লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে দুপুরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহত আপন হিজড়া রাজবাড়ি জেলার পাংশা থানার নিবা এনায়েতপুর গ্রামের কাদের মোল্লার সন্তান।

অন্যদিকে আটক ব্যক্তিরা হল নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া থানার মোবারকপুর গ্রামের নইমুউদ্দিন মিয়ার ছেলে মো. আলী হায়দার মিয়া (২৪) এবং একই থানার বিজয়পুর পূর্ব হাটি গ্রামের সোনা মিয়ার সন্তান হিজড়া সদস্য মাহিশা (২৫)।

থানা পুলিশ জানায়, ভোররাতে বাড়ির মালিক চিৎকার শুনে আপন হিজড়ার ঘরের কাছে ছুটে যান। এ সময় তার সন্দেহ হলে বাইরে থেকে ঘর তালাবন্ধ করে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তার লাশটি উদ্ধার দুইজনকে আটক করে। আটক আলী হায়দার মিয়া ও মাহিশা গত ৩ দিন আগে গ্রামের বাড়ি থেকে আপন হিজড়ার কাছে আসে।

সাভার মডেল থানার এসআই নুর মোহাম্মদ খান জানান, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে আলী হায়দার মিয়া ও হিজড়া মাহিশার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তবে মাহিশার গুরু আপন তাদের নিজের কাছে রাখতে চেয়েছিল। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জড়িয়ে পড়ে এবং হিজড়া সদস্য লতিফ মোল্লাকে (আপন) গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পরই এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আটকৃকতদের আদালতে পাঠানো হবে।

প্রেমের জেরে সাভারে শিষ্যের হাতে হিজড়া গুরু খুন!

 সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি 
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৯:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রেমের সম্পর্কের জেরে সাভারে নিজেদের অন্তর্কোন্দলে লতিফ মোল্লা ওরফে আপন (৩০) নামে এক হিজড়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার শিষ্যরা।

রোববার রাতে পৌর এলাকার রেডিওকলোনি মহল্লার হাফিজুর রহমানের টিনশেড বাড়ির একটি কক্ষে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এক হিজড়াসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। 

খবর পেয়ে সোমবার সকালে সাভার মডেল থানা পুলিশ নিহত আপন হিজড়ার লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে দুপুরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহত আপন হিজড়া রাজবাড়ি জেলার পাংশা থানার নিবা এনায়েতপুর গ্রামের কাদের মোল্লার সন্তান।

অন্যদিকে আটক ব্যক্তিরা হল নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া থানার মোবারকপুর গ্রামের নইমুউদ্দিন মিয়ার ছেলে মো. আলী হায়দার মিয়া (২৪) এবং একই থানার বিজয়পুর পূর্ব হাটি গ্রামের সোনা মিয়ার সন্তান হিজড়া সদস্য মাহিশা (২৫)।

থানা পুলিশ জানায়, ভোররাতে বাড়ির মালিক চিৎকার শুনে আপন হিজড়ার ঘরের কাছে ছুটে যান। এ সময় তার সন্দেহ হলে বাইরে থেকে ঘর তালাবন্ধ করে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তার লাশটি উদ্ধার দুইজনকে আটক করে। আটক আলী হায়দার মিয়া ও মাহিশা গত ৩ দিন আগে গ্রামের বাড়ি থেকে আপন হিজড়ার কাছে আসে।

সাভার মডেল থানার এসআই  নুর মোহাম্মদ খান জানান, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে আলী হায়দার মিয়া ও হিজড়া মাহিশার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তবে মাহিশার গুরু আপন তাদের নিজের কাছে রাখতে চেয়েছিল। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জড়িয়ে পড়ে এবং হিজড়া সদস্য লতিফ মোল্লাকে (আপন) গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পরই এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আটকৃকতদের আদালতে পাঠানো হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন