নিজের ড্রাইভারের নামে মামলা দিয়ে প্রশংসিত এসপি
jugantor
নিজের ড্রাইভারের নামে মামলা দিয়ে প্রশংসিত এসপি

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:৫৮:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজের ড্রাইভারের নামে মামলা দিয়ে প্রশংসিত এসপি

নিজের গাড়িচালকের নামে মামলা দিয়ে নজির গড়েছেন ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান।

ট্রাফিক আইন লঙ্ঘন করায় চালককে সর্তক করতে এ মামলা দেন এসপি। এ মামলায় ওই গাড়িচালকের লাইসেন্স জব্দ করা হয়েছে।

এ ঘটনা জানাজানির পর শহরজুড়ে আলোচনার ঝড় বইছে। ইতিবাচক ও নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন অনেকে।

তবে বেশিরভাগ মানুষই পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামানের প্রশংসা করেছেন। তারা বলছেন, পুলিশ সুপারের এমন ভূমিকায় সাধারণ গাড়িচালদের মধ্যে ট্রাফিক আইনের বিষয়ে সচেতনতা বাড়বে। ভিআইপি বহনকারী চালকদেরও এ থেকে শিক্ষা নেয়া উচিত।

জানা যায়, সোমবার রাত নয়টার দিকে শহরের গাঙ্গিনাপার এলাকা থেকে নতুনবাজারের দিকে যাচ্ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান। তাকে বহন করা সরকারি গাড়িটি চালাচ্ছিলেন পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস।

এ সময় চালক পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস ট্রাফিক আইন লঙ্ঘন করে দ্রুত গতিতে ডিভাইডারের ওপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে নিয়ে যান। এ ঘটনায় ওই চালকের ওপর অসন্তোষ্ট হন এসপি। ট্রাফিক আইন অমান্য করায় সঙ্গে সঙ্গে গাড়ি থামিয়ে ট্রাফিক বিভাগে খবর দেন।

ঘটনাস্থেলে সার্জেন্ট সালমান খান রাজন পৌঁছে সড়ক পরিবহন আইনের ৮৭ ধারায় মামলা করেন। ওই সময় ড্রাইভারের লাইসেন্সও জব্দ করা হয়।

ময়মনসিংহের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, পুলিশ সুপারে অভিযোগের ভিত্তিতে ড্রাইভার পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল কুদ্দুসের নামে সড়ক পরিবহন আইনে মামলা দেয়া হয়েছে। যে ধারায় মামলা হয়েছে তাতে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে।

নিজের ড্রাইভারের নামে মামলা দিয়ে প্রশংসিত এসপি

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নিজের ড্রাইভারের নামে মামলা দিয়ে প্রশংসিত এসপি
ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান। ছবি: সংগৃহীত

নিজের গাড়িচালকের নামে মামলা দিয়ে নজির গড়েছেন ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান।

ট্রাফিক আইন লঙ্ঘন করায় চালককে সর্তক করতে এ মামলা দেন এসপি। এ মামলায় ওই গাড়িচালকের লাইসেন্স জব্দ করা হয়েছে।

এ ঘটনা জানাজানির পর শহরজুড়ে আলোচনার ঝড় বইছে।  ইতিবাচক ও নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন অনেকে।

তবে বেশিরভাগ মানুষই পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামানের প্রশংসা করেছেন।  তারা বলছেন, পুলিশ সুপারের এমন ভূমিকায় সাধারণ গাড়িচালদের মধ্যে ট্রাফিক আইনের বিষয়ে সচেতনতা বাড়বে। ভিআইপি বহনকারী চালকদেরও এ থেকে শিক্ষা নেয়া উচিত।

জানা যায়, সোমবার রাত নয়টার দিকে শহরের গাঙ্গিনাপার এলাকা থেকে নতুনবাজারের দিকে যাচ্ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান।  তাকে বহন করা সরকারি গাড়িটি চালাচ্ছিলেন পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস।

এ সময় চালক পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস ট্রাফিক আইন লঙ্ঘন করে দ্রুত গতিতে ডিভাইডারের ওপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে নিয়ে যান। এ ঘটনায় ওই চালকের ওপর অসন্তোষ্ট হন এসপি।  ট্রাফিক আইন অমান্য করায় সঙ্গে সঙ্গে গাড়ি থামিয়ে ট্রাফিক বিভাগে খবর দেন।

ঘটনাস্থেলে সার্জেন্ট সালমান খান রাজন পৌঁছে সড়ক পরিবহন আইনের ৮৭ ধারায় মামলা করেন। ওই সময় ড্রাইভারের লাইসেন্সও জব্দ করা হয়।

ময়মনসিংহের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, পুলিশ সুপারে অভিযোগের ভিত্তিতে ড্রাইভার পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল কুদ্দুসের নামে সড়ক পরিবহন আইনে মামলা দেয়া হয়েছে।  যে ধারায় মামলা হয়েছে তাতে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন