হাতীবান্ধায় একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম
jugantor
হাতীবান্ধায় একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি  

০৩ মার্চ ২০২০, ২১:৫৬:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন শাপলা বেগম

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন শাপলা বেগম নামে এক গৃহবধূ। তার মধ্যে দুই ছেলে ও এক মেয়ে। নবজাতক ও মা উভয়ে সুস্থ রয়েছেন।

ওই মা ও সন্তানদের একনজর দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় করছেন তাদের বাড়িতে।

খবর পেয়ে ওই বাড়িতে গিয়ে মা ও সন্তানদের খোঁজ নেন হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শামীমা সুলতানা।

শাপলা বেগম উপজেলার মধ্য গড্ডিমারী গ্রামের দিনমজুর সাফিউল ইসলামের স্ত্রী।

জানা গেছে, মধ্য গড্ডিমারী গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে সাফিউল ইসলামের সঙ্গে ২০১৫ সালে বিয়ে হয় নিজ গড্ডিমারী গ্রামের মৃত জফির উদ্দিনের মেয়ে শাপলা বেগমের। বিয়ের পর তাদের সংসারে জন্ম নেয় একটি কন্যা সন্তান। তার নাম জান্নাতুল আক্তার শাম্মী। এরই মধ্যে আবার গর্ভধারণ করেন শাপলা।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি প্রসবজনিত কারণে ওই নারীকে রংপুরে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে জন্ম নেয় ফুটফুটে তিন সন্তান। চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে চলে আসেন তারা।

সাফিউল ইসলাম বলেন, আমি গরিব মানুষ। তবে তিন সন্তান জন্মগ্রহণ করায় আমি খুবই খুশি। মেয়ের নাম রেখেছি সিরাতুন জান্নাত সাথী। তবে ছেলেদের এখনও নাম রাখা হয়নি।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ওই বাড়িতে গিয়ে মা ও শিশুদের দেখে এসেছি। তাদের সার্বিক সহযোগিতা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেয়া হবে। যাতে মা শারীরিকভাবে সুস্থ থাকেন ও ওই শিশুরা স্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠেন।

হাতীবান্ধায় একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম

 লালমনিরহাট প্রতিনিধি 
০৩ মার্চ ২০২০, ০৯:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন শাপলা বেগম
একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন শাপলা বেগম

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন শাপলা বেগম নামে এক গৃহবধূ। তার মধ্যে দুই ছেলে ও এক মেয়ে। নবজাতক ও মা উভয়ে সুস্থ রয়েছেন।

ওই মা ও সন্তানদের একনজর দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় করছেন তাদের বাড়িতে।

খবর পেয়ে ওই বাড়িতে গিয়ে মা ও সন্তানদের খোঁজ নেন হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শামীমা সুলতানা।

শাপলা বেগম উপজেলার মধ্য গড্ডিমারী গ্রামের দিনমজুর সাফিউল ইসলামের স্ত্রী।

জানা গেছে, মধ্য গড্ডিমারী গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে সাফিউল ইসলামের সঙ্গে ২০১৫ সালে বিয়ে হয় নিজ গড্ডিমারী গ্রামের মৃত জফির উদ্দিনের মেয়ে শাপলা বেগমের। বিয়ের পর তাদের সংসারে জন্ম নেয় একটি কন্যা সন্তান। তার নাম জান্নাতুল আক্তার শাম্মী। এরই মধ্যে আবার গর্ভধারণ করেন শাপলা।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি প্রসবজনিত কারণে ওই নারীকে রংপুরে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে জন্ম নেয় ফুটফুটে তিন সন্তান। চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে চলে আসেন তারা।

সাফিউল ইসলাম বলেন, আমি গরিব মানুষ। তবে তিন সন্তান জন্মগ্রহণ করায় আমি খুবই খুশি। মেয়ের নাম রেখেছি সিরাতুন জান্নাত সাথী। তবে ছেলেদের এখনও নাম রাখা হয়নি।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ওই বাড়িতে গিয়ে মা ও শিশুদের দেখে এসেছি। তাদের সার্বিক সহযোগিতা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেয়া হবে। যাতে মা শারীরিকভাবে সুস্থ থাকেন ও ওই শিশুরা স্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন