সাতক্ষীরায় পদ নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রপের সংঘর্ষ, আহত ৫
jugantor
সাতক্ষীরায় পদ নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রপের সংঘর্ষ, আহত ৫

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  

০৭ মার্চ ২০২০, ২০:৩৯:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

সংঘর্ষ

সাতক্ষীরায় পদ নিয়ে দ্বন্দ্বে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে পাঁচজন ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছেন। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রতিপক্ষের দ্বিতীয় দফা হামলার ঘটনায় হাসপাতালে ভর্তি হওয়া দুইজন ছাত্রলীগ কর্মী পালিয়ে গেছে।

পুলিশ এ ঘটনায় ১১ জনকে আটক করেছে। আহত উজ্জ্বলের কাছ থেকে একটি ধারালো ছোরা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বর্তমানে কমিটিবিহীন জেলা ছাত্রলীগের নেতাদের মধ্যে নতুন কমিটির সভাপতি সম্পাদক পদ নিয়ে আশিক গ্রুপ ও পারভেজ গ্রুপ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে। আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে তাদের মধ্যকার বিরোধের জেরে এই সংঘর্ষ ঘটেছে বলে জানা গেছে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী আশিক জানান, তার সমর্থিত ইব্রাহীম, হাসানুজ্জামান নিশান ও সাকিবসহ কয়েকজন ছাত্র আজ শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে বসে গল্প করছিল। এ সময় পারভেজ গ্রুপ সমর্থিত ফরহাদের সয়্গে সিগারেট খাওয়া নিয়ে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় ছুরিকাঘাত করে হামলার ঘটনা ঘটে।

পারভেজ গ্রুপ সমর্থকরা জানান, আনোয়ার সুমন, দেলোয়ার, আশিক, আদনান এই হামলার জন্য দায়ী। এতে কলেজছাত্র উজ্জ্বলসহ কয়েকজন আহত হন। উজ্জ্বল জানান, আশিক গ্রুপ সজীব ও ফরহাদকে মারপিট করছিল। উজ্জ্বল তাদের ঠেকাতে গেলে তিনিও আহত হন।

উজ্জ্বল অভিযোগ করে বলেন, তাদের মারপিটের পর তারা হাসপাতালে গেলে সেখানে আরও এক দফা হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় কয়েকজন হাসপাতালের বেড ছেড়ে পালিয়ে যায়।

তবে আশিক গ্রুপ প্রধান আশিক এ সব তথ্য খণ্ডন করে বলেন, তার সমর্থকরা পারভেজকে গালাগাল করেছে এমন মিথ্যা অভিযোগ তুলে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

সদর থানা পুলিশের এসআই নুর আলম জানান, একটি মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার ঘটনা নিয়ে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত। লিজা নামের ওই মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। মারামারির ঘটনায় আটক করা হয়েছে ১১ জনকে।

সাতক্ষীরায় পদ নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রপের সংঘর্ষ, আহত ৫

 সাতক্ষীরা প্রতিনিধি 
০৭ মার্চ ২০২০, ০৮:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সংঘর্ষ
সংঘর্ষ। প্রতীকী ছবি

সাতক্ষীরায় পদ নিয়ে দ্বন্দ্বে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে পাঁচজন ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছেন। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রতিপক্ষের দ্বিতীয় দফা হামলার ঘটনায় হাসপাতালে ভর্তি হওয়া দুইজন ছাত্রলীগ কর্মী পালিয়ে গেছে। 

পুলিশ এ ঘটনায় ১১ জনকে আটক করেছে। আহত উজ্জ্বলের কাছ থেকে একটি ধারালো ছোরা উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

বর্তমানে কমিটিবিহীন জেলা ছাত্রলীগের নেতাদের মধ্যে নতুন কমিটির সভাপতি সম্পাদক পদ নিয়ে আশিক গ্রুপ ও পারভেজ গ্রুপ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে। আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে তাদের মধ্যকার বিরোধের জেরে এই সংঘর্ষ ঘটেছে বলে জানা গেছে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী আশিক জানান, তার সমর্থিত ইব্রাহীম, হাসানুজ্জামান নিশান ও সাকিবসহ কয়েকজন ছাত্র আজ শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে বসে গল্প করছিল। এ সময় পারভেজ গ্রুপ সমর্থিত ফরহাদের সয়্গে সিগারেট খাওয়া নিয়ে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় ছুরিকাঘাত করে হামলার ঘটনা ঘটে। 

পারভেজ গ্রুপ সমর্থকরা জানান, আনোয়ার সুমন, দেলোয়ার, আশিক, আদনান এই হামলার জন্য দায়ী। এতে কলেজছাত্র উজ্জ্বলসহ কয়েকজন আহত হন। উজ্জ্বল জানান, আশিক গ্রুপ সজীব ও ফরহাদকে মারপিট করছিল। উজ্জ্বল তাদের ঠেকাতে গেলে তিনিও আহত হন। 

উজ্জ্বল অভিযোগ করে বলেন, তাদের মারপিটের পর তারা হাসপাতালে গেলে সেখানে আরও  এক দফা হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় কয়েকজন হাসপাতালের বেড ছেড়ে পালিয়ে যায়। 

তবে আশিক গ্রুপ প্রধান আশিক এ সব তথ্য খণ্ডন করে বলেন, তার সমর্থকরা পারভেজকে গালাগাল করেছে এমন মিথ্যা অভিযোগ তুলে এ হামলার ঘটনা ঘটে। 

সদর থানা পুলিশের এসআই  নুর আলম  জানান, একটি মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার ঘটনা নিয়ে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত। লিজা নামের ওই মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। মারামারির ঘটনায় আটক করা হয়েছে ১১ জনকে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন