ভোলায় কোয়ারেন্টাইনে ১২৪, তিন প্রবাসীকে জরিমানা
jugantor
ভোলায় কোয়ারেন্টাইনে ১২৪, তিন প্রবাসীকে জরিমানা

  যুগান্তর রিপোর্ট, ভোলা  

১৯ মার্চ ২০২০, ১৮:০৫:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার সাত উপজেলায় গত ৩৬ ঘণ্টায় আরও ১১০ জন প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এ নিয়ে ভোলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীদের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৪ জনে।

এ ছাড়াও হোম কোয়ারেন্টাইনের শর্ত ভঙ্গ করায় তিন প্রবাসীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার রাতে ভোলা সদরের এক ইতালি প্রবাসীকে ৫ হাজার টাকা, চরফ্যাশনের দুই প্রবাসীকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ভোলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ভোলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীর সংখ্যা ছিল ৪৯ জন। এদের মধ্যে পুরনো ছিল ১৪ জন ও নতুন করে যুক্ত হয়েছে ৩৫ জন। এ ছাড়াও বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর পর্যন্ত যুক্ত হয়েছে নতুন আরও ৭৫ জন।

জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীর মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৪ জন। এদের মধ্যে ভোলা সদর উপজেলায় ২৬ জন, দৌলতখানে ১৫ জন, বোরহানউদ্দিনে ১৭ জন, তজুমদ্দিনে ৭ জন, লালমোহনে ৩১ জন, চরফ্যাশনে ৩ জন ও মনপুরায় ২৫ জন।

ভোলার সিভিল সার্জন রতন কুমার ঢালী বলেন, মার্চ মাসের এক তারিখ থেকে ভোলায় কুয়েত, ইতালি, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ১৩০০ প্রবাসী ভোলায় এসেছেন। এদের মধ্যে যারা গত কয়েক দিনে আগমন করেছেন তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ প্রদান করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনা প্রস্তুতি হিসেবে ভোলা সদর হাসপাতালে ২০ শয্যার একটি আইসোলেশন ইউনিট খোলা হয়েছে। প্রয়োজনে এটি ১০০ শয্যা পর্যন্ত উন্নীত করা যাবে। ইতিমধ্যে বিদেশ ফেরত অনেক প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে ভোলায় এখনও কোনো করোনা আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মেলেনি।

ভোলায় কোয়ারেন্টাইনে ১২৪, তিন প্রবাসীকে জরিমানা

 যুগান্তর রিপোর্ট, ভোলা 
১৯ মার্চ ২০২০, ০৬:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার সাত উপজেলায় গত ৩৬ ঘণ্টায় আরও ১১০ জন প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এ নিয়ে ভোলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীদের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৪ জনে।

এ ছাড়াও হোম কোয়ারেন্টাইনের শর্ত ভঙ্গ করায় তিন প্রবাসীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার রাতে ভোলা সদরের এক ইতালি প্রবাসীকে ৫ হাজার টাকা, চরফ্যাশনের দুই প্রবাসীকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
 
ভোলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ভোলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীর সংখ্যা ছিল ৪৯ জন। এদের মধ্যে পুরনো ছিল ১৪ জন ও নতুন করে যুক্ত হয়েছে ৩৫ জন। এ ছাড়াও বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর পর্যন্ত যুক্ত হয়েছে নতুন আরও ৭৫ জন।

জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীর মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৪ জন। এদের মধ্যে ভোলা সদর উপজেলায় ২৬ জন, দৌলতখানে ১৫ জন, বোরহানউদ্দিনে ১৭ জন, তজুমদ্দিনে ৭ জন, লালমোহনে ৩১ জন, চরফ্যাশনে ৩ জন ও মনপুরায় ২৫ জন।

ভোলার সিভিল সার্জন রতন কুমার ঢালী বলেন, মার্চ মাসের এক তারিখ থেকে ভোলায় কুয়েত, ইতালি, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ১৩০০ প্রবাসী ভোলায় এসেছেন। এদের মধ্যে যারা গত কয়েক দিনে আগমন করেছেন তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ প্রদান করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনা প্রস্তুতি হিসেবে ভোলা সদর হাসপাতালে ২০ শয্যার একটি আইসোলেশন ইউনিট খোলা হয়েছে। প্রয়োজনে এটি ১০০ শয্যা পর্যন্ত উন্নীত করা যাবে। ইতিমধ্যে বিদেশ ফেরত অনেক প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে ভোলায় এখনও কোনো করোনা আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মেলেনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন