লোকজনের ভয়ে পালিয়ে শ্বশুরবাড়ি গিয়ে আরও বিপদে পড়লেন প্রবাসী

  কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ২১ মার্চ ২০২০, ২০:০৯:৪৬ | অনলাইন সংস্করণ

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে শ্বশুরবাড়ি গেলেন সামাদ নামে এক প্রবাসী জামাই। পরে সেখানেই তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং তাকে শ্বশুরবাড়িতেই হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়।

শুক্রবার রাত ৯টায় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজরাতুন নাঈম ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে এ জরিমানা করেন।

উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের উত্তরভাগ এলাকার বাসিন্দা হিরা মিয়ার ছেলে প্রবাসী সামাদ ১৫ মার্চ সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে দেশে ফেরেন। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী তাকে নিজ দায়িত্বে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা।

কিন্তু তিনি সেই নির্দেশনা না মেনে ঘোরাফেরা করতে থাকেন নিজ এলাকায়। একপর্যায়ে ওই এলাকার লোকজন তার ঘোরাফেরা দেখে করোনা আতঙ্কে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

একপর্যায়ে এলাকার লোকজনের ভয়ে উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নে শ্বশুরবাড়িতে চলে যান। সেখানে যাওয়ার পরও তিনি স্থানীয় চৌধুরীবাজারে বাজারে ঘোরাফেরা করতে থাকেন।

শুক্রবার রাত ৯টায় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম কুলাউড়ার রোবারবাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত শেষে ফেরার পথে স্থানীয় চৌধুরীবাজার এলাকায় আসলে ওই প্রবাসীকে ঘোরাফেরা করতে দেখেন।

এ সময় নাজরাতুন নাঈম তার কাছে জানতে চান, তিনি কেন কোয়ারেন্টাইনে না থেকে ঘোরাফেরা করছেন। এ সময় প্রবাসী কোনো সঠিক উত্তর দিতে পারেননি। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম জানান, হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে ঘুরাফেরা করার অপরাধে এ জরিমানা ও জরিমানাকৃত অর্থ আদায় করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাকে শ্বশুরবাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত