অটোরিকশা ছিনিয়ে নিতে দুই বন্ধু পিয়ালকে হত্যা করে

  বগুড়া ব্যুরো ৩১ মার্চ ২০২০, ২৩:০৩:৩১ | অনলাইন সংস্করণ

আজগর আলী পিয়াল

বগুড়ায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা ছিনিয়ে নিতেই আজগর আলী পিয়ালকে হত্যা করে দুই বন্ধু। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ৩ জন পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন।

মঙ্গলবার তারা পুলিশের কাছে এ স্বীকারোক্তি দেন। পরে তাদের মধ্যে দুজনকে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি রেকর্ড করতে ও রিকশা উদ্ধারে একজনকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিতে বিকালে আদালতে হাজির করা হয়।

গ্রেফতার তিনজন হলেন বগুড়া সদরের ছোট কুমিড়া গ্রামের মৃত জমির উদ্দিনের ছেলে আবদুল হান্নান, একই গ্রামের দুলু খানের ছেলে রাশেদ খান ও দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে নুরুন্নবী মুন্না।

পুলিশ জানায়, পিয়াল বগুড়া শহরের নিশিন্দারা মধ্যপাড়ার মহিদুল ইসলাম খোকার ছেলে। তিনি ২১ মার্চ অটোরিকশা নিয়ে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হন। এ ব্যাপারে সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

সদর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) রেজাউল করিম রেজা জানান, ২৮ মার্চ বিকালে শহরতলির বড় কুমিড়া হিন্দুপাড়ার কবরস্থানে তার গলিত লাশ পাওয়া যায়। লাশ শনাক্তের পর তার বাবা সদর থানায় হত্যা মামলা করেন। তদন্ত চলাকালে হত্যায় জড়িত সন্দেহে সোমবার রাশেদ ও হান্নানকে গ্রেফতার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে দুজন হত্যার দায় স্বীকার করেন। তারা জানান, অটোরিকশা ছিনিয়ে নিতে নেশার প্রলোভনে ২১ মার্চ রাতে পিয়ালকে তার অটোরিকশায় বড় কুমিড়া গ্রামে বিএড কলেজের পেছনে বাঁশবাগানে নিয়ে যায়। সেখানে তারা লোপেন্ট নামক মাদক সেবন করে। এক পর্যায়ে তারা ইট দিয়ে পিয়ালের মাথায় আঘাত করলে তিনি মারা যান।

তারা লাশ পাশের পাকা কবরে ফেলে অটোরিকশা নিয়ে পালিয়ে যান। ওই রাতেই রিকশাটি ঘোড়াঘাটে নিয়ে বিক্রির জন্য মুন্নার কাছে রেখে আসেন। তাদের কাছ থেকে পিয়ালের মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

এ ছাড়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রিকশা ক্রেতা নুরুন্নবী মুন্নাকে গ্রেফতার করা হয়।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত