ময়মনসিংহে জ্বর-শ্বাসকষ্টে কলেজছাত্র ও বৃদ্ধের মৃত্যু

  ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ০১ এপ্রিল ২০২০, ২০:৫৭:১৭ | অনলাইন সংস্করণ

জ্বরে আক্রান্ত। প্রতীকী ছবি

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে জ্বর, সর্দি, শ্বাসকষ্ট ও গলা ব্যথায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কলেজছাত্র শরিফ (২০) ও হোটেল ব্যবসায়ী আবদুল বারেক (৬০)।

মঙ্গলবার রাতে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের গোল্লা জয়পুর গ্রামের তফাজ্জল হোসেনের শ্যালক কলেজছাত্র শরিফশরিফ (২০) চারদিন জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগে বোনের বাড়িতে মারা যান। সে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার জল্লি গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে।

শরিফের মৃত্যুর পর সকালে তার ভাগনির গলা ব্যথা অনুভূত হওয়ায়। পরে তার বোন ও ভাগনিকে পরিবারের লোকজন ময়মনসিংহের এসকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এদিকে একই রাতে ঈশ্বরগঞ্জের মগটুলা ইউনিয়নের মধুপুর বাজারে হোটেল ব্যবসায়ী আব্দুল বারেক (৬০) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। তিনি এক সপ্তাহ ধরে জ্বর,সর্দি ও কাশিতে ভুগছিলেন।

এ নিয়ে ওই এলাকায় গত তিন দিনে জ্বর, সর্দি ও কাশিতে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসব মৃতদের দাফনের আগে কোনো পরীক্ষা করা হচ্ছে না। ফলে এলাকার মানুষ আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে।

গত ২৬ মার্চ উপজেলার কাঁকনহাটি গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া জ্বর, সর্দি ও কাশিতে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। একই দিনে মারা যান মাইজবাগ ইউনিয়নের কবির ভুলসোমা গ্রামের মো. নেওয়া আলীর মেয়ে নাজমা বেগম (২৫)। পরদিন শুক্রবার সন্ধ্যায় মারা যান তার চাচা আব্দুর রাজ্জাক (৫৫) । দুজনেরই জ্বর, সর্দি ও কাশি ছাড়াও ছিল শ্বাসকষ্ট। পাঁচটি মৃত্যুর ঘটনায় এলাকার লোকজন আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।

এ ব্যাপারে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. নুরুল হুদা খান জানান, মৃতরা শ্বাসকষ্ট ও অ্যাজমা রোগী ছিল। তবে মা ও মেয়েকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তাদের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত