উপজেলা চেয়ারম্যানের হাতে ধরা খেলেন এএসআই
jugantor
উপজেলা চেয়ারম্যানের হাতে ধরা খেলেন এএসআই

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

০৩ এপ্রিল ২০২০, ২১:৪৯:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

ট্রাক, পিকআপ থেকে চাঁদাবাজির সময় সিভিল পোশাক পরিহিত এএসআই কবীরকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন ভালুকা উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগে জানা গেছে, দু’দিন ধরে ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে দাঁড়িয়ে ট্রাক এবং পিকআপ থেকে লোক নামানো এবং মামলার ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করছেন। এমন খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ হাতেনাতে পুলিশের চাঁদাবাজি ধরে ফেলেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান চাঁদাবাজির কথা জিজ্ঞেস করলে ওই কর্মকর্তাসহ কয়েকজন পুলিশ দৌড়ে পালিয়ে যান। এ সময় ভুক্তভোগী ড্রাইভাররা পুলিশের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে আবুল কালাম আজাদের কাছে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন। ঘটনাটি উপজেলা চেয়ারম্যান তার ফেসবুক আইডি থেকে লাইভ করেন।

ভালুকা উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, দু’দিন ধরে পুলিশ রাস্তায় প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি করছে খবর পেয়ে আমি তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলি। গণপরিবহন না থাকার সুযোগে হাইওয়ে পুলিশ ট্রাক ও পিকআপ থেকে কয়েক দিন ধরে বেপরোয়াভাবে চাঁদাবাজি করছেন।

ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশের আইসি উযায়ের আহম্মেদ আদনান বলেন, সিভিলে কোনো লোক যদি রাস্তায় চাঁদাবাজি করে সেটার দায় দায়িত্ব পুলিশ নেবে না।

উপজেলা চেয়ারম্যানের হাতে ধরা খেলেন এএসআই

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৯:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ট্রাক, পিকআপ থেকে চাঁদাবাজির সময় সিভিল পোশাক পরিহিত এএসআই কবীরকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন ভালুকা উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ। 

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগে জানা গেছে, দু’দিন ধরে ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে দাঁড়িয়ে ট্রাক এবং পিকআপ থেকে লোক নামানো এবং মামলার ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করছেন। এমন খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ হাতেনাতে পুলিশের চাঁদাবাজি ধরে ফেলেন। 

উপজেলা চেয়ারম্যান চাঁদাবাজির কথা জিজ্ঞেস করলে ওই কর্মকর্তাসহ কয়েকজন পুলিশ দৌড়ে পালিয়ে যান। এ সময় ভুক্তভোগী ড্রাইভাররা পুলিশের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে আবুল কালাম আজাদের কাছে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন। ঘটনাটি উপজেলা চেয়ারম্যান তার ফেসবুক আইডি থেকে লাইভ করেন।

ভালুকা উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, দু’দিন ধরে পুলিশ রাস্তায় প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি করছে খবর পেয়ে আমি তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলি। গণপরিবহন না থাকার সুযোগে হাইওয়ে পুলিশ ট্রাক ও পিকআপ থেকে কয়েক দিন ধরে বেপরোয়াভাবে চাঁদাবাজি করছেন।

ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশের আইসি উযায়ের আহম্মেদ আদনান বলেন, সিভিলে কোনো লোক যদি রাস্তায় চাঁদাবাজি করে সেটার দায় দায়িত্ব পুলিশ নেবে না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন