নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত মাহমুদের দাফন সম্পন্ন

  ফরিদপুর ব্যুরো ২০ মার্চ ২০১৮, ১৮:১২ | অনলাইন সংস্করণ

বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ফরিদপুরের মাহমুদুর রহমান রিমন

নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ফরিদপুরের মাহমুদুর রহমান রিমনের ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার লস্করদিয়া গ্রামের দানেশমান বাগদাদী মাজার শরিফের পাশে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় লস্করদিয়া আতিকুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের তার চতুর্থ জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় নগরকান্দা উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ শাহিনুজ্জামান, ইউএনও বদরুদ্দোজা সুমন, এস এম জালালউদ্দিনসহ স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেয়। জানাজা পরিচালনা করেন মাওলানা মো. কামরুজ্জামান। পরে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এর আগে সকাল সাড়ে ৮টার সময় মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্স তার নিজ বাড়ি নগরকান্দার লস্করদিয়া পৌঁছলে সেখানে কয়েকশ মানুষ তাকে দেখার জন্য ছুটে আসেন। সকাল ৯টার সময় ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানাতে রিমন মাহমুদের বাড়িতে যান। জেলা প্রশাসক নিহতের পরিবারকে তাৎক্ষণিকভাবে ৫০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেন এবং উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আরও ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়।

নিহত মাহমুদুর রহমান রিমনের বাবার নাম মশিউর রহমান। মা-বাবার দুই ছেলের মধ্যে রিমন ছিল সবার বড়। বিয়ে করেছেন প্রায় সাত বছর আগে। তার স্ত্রীর নাম সানজিদা বেগম ঝর্না। রিমন চাকরি করতেন রানার গ্রুপের তেজগাঁও অফিসের হেড অব সার্ভিস পদে। অফিসের কাজে সেদিন ঢাকা থেকে নেপালের যাচ্ছিলেন রিমন।

বিমান দুর্ঘটনায় যারা মারা গেছেন তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, যারা নিহত হয়েছেন তাদের সমবেদনা জানানোর কোনো ভাষা নেই। তবে যিনি পুত্র হারিয়েছেন আমিসহ জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসনসহ সবাই তার পাশে থাকবে।

নিহত রিমনের স্ত্রী সানজিদা বেগম ঝর্না বলেন, আমার স্বামী রিমন অফিসিয়াল কাজের জন্য নেপাল যান। সেখানে তার মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। সে যাওয়ার সময় আমাকে ঠিকমতো কথা বলে যেতে পারেনি। এখন আমার সন্তানদের নিয়ে কী হবে বুঝতে পারছি না।

ঘটনাপ্রবাহ : নেপালে ইউএস বাংলা বিধ্বস্ত

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×