হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফিরে তরুণীর মৃত্যু, করোনা রোগী সন্দেহ
jugantor
হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফিরে তরুণীর মৃত্যু, করোনা রোগী সন্দেহ

  মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৭ এপ্রিল ২০২০, ০০:৫৯:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা শেষে বাড়িতে ফেরার একদিন পরেই মারা গেলেন এক তরুণী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার পানিয়াতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

নিজ বাড়িতে মারা যান তরুণী। বিকালে তার দাফন করা হয়েছে।

মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এএইচএম ইসতাক মামুন বলেন, মৃতের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোট না আসা পর্যন্ত তার করোনা ছিল কি না বলা যাবে না।

জানা গেছে, বুধবার ওই তরুণী জ্বর ও কাশি নিয়ে মাধবপুর হাসপাতালে আসেন। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে যান। একদিন পরেই তার মৃত্যু হয়। পরে বিকালে গ্রামের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান জানান, কয়েকদিন ধরে ওই তরুণী জ্বর-কাশিতে ভুগছিলেন। বুধবার হাসপাতালে গেলে ডাক্তার তাকে ভর্তির পরামর্শ দেন।কিন্তু স্বজনরা সে কথা না শুনে তাকে বাড়ি নিয়ে আসে। পর দিনই সে মারা যায়।

মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল হোসেন জানান, শুনেছি ওই তরুণীর টাইফয়েড হয়েছিল। তার জ্বর-কাশি শুরু হলে পরিবার ও প্রতিবেশীরা স্বেচ্ছায় হোম কোয়ারেন্টিনে চলে যায়। তরুণী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কিনা এখন পর্যন্ত না জানা গেলেও এলাকায় নজরদারি জোরদার করেছি। সবাইকে কোয়ারেন্টিন মেনে চলতে বলেছি।

হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফিরে তরুণীর মৃত্যু, করোনা রোগী সন্দেহ

 মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৭ এপ্রিল ২০২০, ১২:৫৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা শেষে বাড়িতে ফেরার একদিন পরেই মারা গেলেন এক তরুণী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার পানিয়াতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

নিজ বাড়িতে মারা যান তরুণী। বিকালে তার দাফন করা হয়েছে।

মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এএইচএম ইসতাক মামুন বলেন, মৃতের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোট না আসা পর্যন্ত তার করোনা ছিল কি না বলা যাবে না।

জানা গেছে, বুধবার  ওই তরুণী জ্বর ও কাশি নিয়ে মাধবপুর হাসপাতালে আসেন। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে যান। একদিন পরেই তার মৃত্যু হয়। পরে বিকালে গ্রামের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।  

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান  জানান,  কয়েকদিন ধরে ওই তরুণী জ্বর-কাশিতে ভুগছিলেন। বুধবার হাসপাতালে গেলে ডাক্তার তাকে ভর্তির পরামর্শ দেন।কিন্তু স্বজনরা সে কথা না শুনে তাকে বাড়ি নিয়ে আসে। পর দিনই সে মারা যায়।

মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল হোসেন জানান, শুনেছি ওই তরুণীর টাইফয়েড হয়েছিল। তার জ্বর-কাশি শুরু হলে পরিবার ও প্রতিবেশীরা স্বেচ্ছায় হোম কোয়ারেন্টিনে চলে যায়। তরুণী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কিনা এখন পর্যন্ত না জানা গেলেও এলাকায় নজরদারি জোরদার করেছি। সবাইকে কোয়ারেন্টিন মেনে চলতে বলেছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন